ড্রোনের সাহায্যে কাশ্মীরে টাকা এবং অস্ত্র ছড়াচ্ছে পাকিস্তান! -Deshebideshe

0
77

কাশ্মীর, ২০ সেপ্টেম্বর- জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলায় ড্রোনের সাহায্যে অস্ত্র ও টাকা ছড়াল পাকিস্তান। নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে ছড়ানো সেই টাকা ও অস্ত্র তুলতে এসে গ্রেপ্তার হল তিন লস্কর-ই-তৈবা জঙ্গি। শনিবার সন্ধ্যায় কাশ্মীর পুলিশের ডিজিপি দিলবাগ সিং একথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় পুলিশ ও ৩৮ জন রাষ্ট্রীয় রাইফেলস শাখার ভারতীয় সেনাদের চালানো যৌথ অভিযানে জম্মুর রাজৌরিতে সাফল্যের সঙ্গে পাকিস্তানের নাশকতা চালানোর ছক বানচাল করে দেওয়া হয়।

ধৃত তিন জঙ্গি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘‘ধৃত তিন লস্কর-ই-তৈবা জঙ্গিই কাশ্মীরের বাসিন্দা। ওরা পাক ড্রোনের ফেলা অস্ত্র ও টাকা তুলতে এসে ধরা পড়ে।’’ দিলবাগ সিং আরও বলেন, গত ১১ সেপ্টেম্বর থেকে রাজৌরি ও পুঞ্চ জেলায় এটা তাঁদের তৃতীয় সফল অভিযান। তিনি জানান, ওই তিন জঙ্গিকে দেখা যায় একটি ব্যাগ নিয়ে ঘোরাফেরা করতে। সন্দেহ হওয়ায় তাদের ঘিরে ফেললে তাদের একজন একটি গ্রেনেড ছোঁড়ে। কিন্তু সেটি ফাটেনি। পরে তাদের তিনজনকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে দু’টি একে-৫৬ রাইফেল, দু’টি পিস্তল, চারটি গ্রেনেড এবং নগদ এক লক্ষ টাকা।

তিন দিন আগে পুঞ্চ জেলার বালাকোটের বাসিন্দা দুই ব্যক্তির থেকে ১১ কেজি হিরোইন ও ১১ কোটি টাকা আটক করা হয় রাজৌরি জেলায়। মনে করা হচ্ছে, জঙ্গি কার্যকলাপ চালানোর জন্যই সেগুলি ছড়িয়েছিল পাকিস্তান।

আরও পড়ুন- ভারতে কৃষি বিলের প্রতিবাদে মন্ত্রীত্ব ছাড়লেন হরসিমরত

নিয়ন্ত্রণরেখা সংলগ্ন এলাকায় পাকিস্তানের সক্রিয়তা প্রসঙ্গে ডিজিপি বলেন, ‘‘পাকিস্তান ও তাদের এজেন্সিগুলি সবসময়ই সক্রিয়। তারা প্রতি মুহূর্তে জম্মু ও কাশ্মীরের বিভিন্ন এলাকায় শান্তিভঙ্গের চেষ্টা করে চলেছে। ড্রোনের সাহায্যে অস্ত্র ও মাদক দ্রব্য ছড়ানো এবং পুঞ্চ ও রাজৌরির জঙ্গিদের মদত দেয় তারা। যার ফলে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের ঘটনা নিত্তনৈমিত্তিক হয়ে উঠেছে।’’ তবে তিনি জানিয়েছেন, পুলিশ, সেনা ও অন্য বাহিনীদের যৌথ প্রচেষ্টায় পাকিস্তানের সব পরিকল্পনাই ব্যর্থ করে দেওয়া সম্ভব হয়েছে। জম্মু ও কাশ্মীরের শান্তি বজায় রয়েছে বলেই জানান তিনি।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন
আডি/ ২০ সেপ্টেম্বর

Source link