ডিসেম্বরে ‘বাংলাদেশ ন্যাপ’এর জাতীয় কাউন্সিল

24

আগামী ডিসেম্বর ২০২২’এ বাংলাদেশ ন্যাপ’র জাতীয় কাউন্সিল অধিবশেন অনুষ্ঠিত হবে।

শুক্রবার (১৭ জুন) গুলশানের দলীয় প্রধানের কার্যালয়ে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ’র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানির সভাপতিত্বে ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া’র সঞ্চালানায় সভায় বক্তব্য রাখেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুনির এনায়েত মল্লিক, ব্যারিস্টার মশিউর রহমান গানি, ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, যুগ্ম মহাসচিব মো. নুরুল আমান চৌধুরী, আতিকুর রহমান, মো. মহসীন ভুইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, মিতা রহমান, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য মো. আমজাদ হোসেন, কেন্দ্রীয় নেতা শফিকুল আলম শাহিন, বাদল দাস, কাকলি রহমান প্রমুখ।

সভায় জাতীয় কাউন্সিল সফল করা লক্ষে দলের মহাসচিবকে আহ্বায়ক করে কাউন্সিল প্রস্তুতি কমিটি গঠন করা হয়। একই সাথে আগামী ২৬ জুলাই দলের ৬৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। একই সাথে আগামী আগস্ট মাস থেকে দলের সকল জেলা ও মহানগর সম্মেলন অনুষ্ঠানেরও সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

সভায় অভিমত প্রখাম করা হয় যে, জনজীবন যখন দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বোগতিতে জড়জড়িত, গ্যাস-বিদু্যতের মুল্যবৃদ্ধি আগুনে ঘি ঢালা সমান। বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে চরম অসময় যাচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে মূল্যবৃদ্ধির সময় এটা নয়। যে চেষ্টা হচ্ছে, সেটি আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। সরকারকে বেকায়দায় ফেলার শামিল।

সভায় বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী ও ভিন্নমতের নাগরিকদের ওপর দমন-পীড়ন চালিয়ে ক্ষমতা চিরস্থায়ী করা যায় না ইতিহাস তা বার বার প্রমান করেছে। সরকার পরিচালনায় ব্যার্থ সরকার আজ বিরোধী দলের উপর নির্যাতন চালাতে স্বক্ষম হলেও বাজার নিয়ন্ত্রনে সম্পূর্ণ ব্যর্থ।

সভার শুরুতে দলের প্রতিষ্ঠাতা মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানী, জাতীয় নেতা মশিউর রহমান যাদু মিয়া, জননেতা শফিকুল গানি স্বপন, প্রেসিডিয়াম সদস্য ভাষা সৈনিক গোলাম সারওয়ার খান, আবদুস সালাম মাস্টার, সুব্রত বারুরী, ভাইস চেয়ারম্যান নাজির আহমেদ, রেহনা আক্তার, চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি ওসমান গনি শিকদার, নারায়নগঞ্জ জেলা সভাপতি ওয়াজিউল্লাহ অজুসহ প্রয়াত সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এ সময় তাদের সবার আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।