টেকনাফ উপজেলা আইন সহায়তা কমিটির সমন্বয়ে সংবেদনশীলতা অধিবেশন অনুষ্ঠিত

0
158

জয়নাল আবেদীনঃ টেকনাফ উপজেলায় টেকনাফ উপজেলা আইন সহায়তা কমিটির সমন্বয়ে মানব পাচার, জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা, উগ্র সহিংসতার শিকার ব্যক্তিদের অধিকার বিষয়ক সংবেদনশীলতা অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ সোমবার ১২ অক্টোবর, ২০২০ উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের বাস্তবায়নে ও ইউএসএআইডির প্রমোটিং পিস অ্যান্ড জাস্টিস (পিপিজে) অ্যাক্টিভিটি’র আর্থিক সহযোগিতায় এবং টেকনাফ উপজেলা আইন সহায়তার কমিটি ও ইপসার উদ্যোগে এটির আয়োজন করা হয়। উপজেলা পর্যায়ের আইন সহায়তার কমিটির সদস্যদের নিয়ে সংবেদনশীলতা অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন টেকনাফ উপজেলা আইন সহায়তার কমিটির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আলম।

এসময় বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান তাহেরা বেগম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. মোহাম্মদ জাকারিয়া মাহামুদ, উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা,হোয়ক্যং ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমেদ আনোয়ারীসহ উপজেলা পর্যায়ের সরকারি ও বেসরকারি কর্মকর্তারা।
সেশন পরিচালনা করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. মোহাম্মদ জাকারিয়া মাহামুদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন পিপিজে-কক্সবাজার প্রকল্প ব্যবস্থাপক জয়নাল আবেদীন।

টেকনাফ উপজেলা আইন সহায়তার কমিটির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আলম তার বক্তব্যে বলেন,

“ টেকনাককে বলতে গেলে মানব পাচারের স্বর্গ রাজ্য বলা যায়, সাগর পথ ব্যবহার করে প্রতি বছর অনেক মানুষ পাচারের শিকার হচ্ছে। বিশেষ করে এসব মানুষ অল্প শিক্ষিত”।

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান তাহেরা বেগম বলেন,

“ মানব পাচার ও জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা আমাদের এলাকায় প্রকট, বিশেষ করে রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করার পর এটার প্রভাব আরো বেড়ে গেছে। এই এলাকার নারীরা সহিংসতার শিকার হচ্ছে তার পরিবারের সদস্যের দ্বারা। এখানে লিগ্যাল এইডের অনেক কাজ করার সুযোগ রয়েছে”।

হোয়াইক্যং ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমেদ বলেন,

“ করোনাকালীন সময়ে যখন সব কিছু লকডাউন করা হল, তখন আসলে পারিবারিক সহিংসতার পরিমাণ বেড়ে গেছে। তার কারণ অনেকে কর্মহীন হয়ে পড়েছে। ঘরে ঠিকমত খাবার ছিল না”।

সভায় কমিটির পক্ষ থেকে কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যেমনঃ মানবপাচার, জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা, উগ্র সহিংসতা শিকার হতে বাঁচতে জনসচেতনতামূলক প্রচারের সিদ্ধান্ত হয়।
আর কেউ এসবের শিকার হলে লিগ্যাল এইডের মাধ্যমে কিভাবে সমাধান করা যায় সে ব্যাপারে উদ্যোগ গ্রহণ করা।