জোঁক

0
88

জোঁক ছোট একটি প্রাণী
কিন্তু আমার মায়ের কাছে বড়ই ভয়ঙ্কর।
রক্ত পিপাশু জোঁক দেখলেই
আমার মায়ের মুখ ভীতিগ্রস্থ হয়,
মা যে আমার কোমল মতি মানুষ।
যেহেতু আমার মা-
মাঠে ঝোপঝাড়ে তেমন যায় না
সেহেতু আমার মা অনেকটা সুরক্ষিত।
কিন্তু আমার বঙ্গ মাতা অগণিত, অসংখ্য-
জোঁকের উতপাতে অতিষ্ঠ।
আমি কিন্তু এখন মেরুদণ্ডহীন-
রক্ত চোষক জোঁকের কথা বলছি না!
আমি মানব রূপি জোঁকের কথা বলছি,
আমি কিন্তু সবাইকে বলছি না।
আমি মানব হিতৈষী রূপি-
ঘুষখোর জোঁকদের কথা বলছি!
আমি রক্ষক রূপি-
ভক্ষক জোঁকদের কথা বলছি!
আমি আদর্শ নেতা রূপি-
রাজকোষ ভোগী জোঁকদের কথা বলছি!
আমি নয়ছয় করা-
ঠিকাদার জোঁকদের কথা বলছি!
আমি অবৈধ ব্যবসায়ী-
জোঁকদের কথা বলছি!
আমি সাহায্যকারি রূপি-
সুদখোর জোঁকদের কথা বলছি!
আমি রাঘববোয়াল জোঁকদের কথা বলছি!
এরা আমার বাংলা মাতার বক্ষে থেকে
বাংলার সাথে জোঁকের মতো করে আচরণ;
এরা বাংলা মাতার
অর্থ শোষে চলেছে ক্রমগত।
এরা শোষে শোষে
নিজেরা আর্থিক হৃষ্টপুষ্ট হয়,
আর বাংলাকে করে দেয়
অনেকটা দুর্বল, শীর্ণকায়!
এদের মুখে ছিটাতে হবে প্রতিবাদের নুন-
অফিসে অফিসে ছিটাতে হবে নুন,
রাস্তায় রাস্তায় ছিটাতে হবে নুন,
সীমান্তে সীমান্তে ছিটাতে হবে নুন,
বন্দরে বন্দরে ছিটাতে হবে নুন,
যেখানেই জোঁকের অস্তিত্ব-
সেখানেই ছিটাতে হবে নুন।
আমার এ কবিতা পড়ে-
যারা রাগে ক্ষোভে অগ্নিশর্মা,
যারা ক্রোধে জ্বলছে আর জ্বলছে,
তবে নিশ্চিত এ কবিতা-
নুন হয়ে ওদের মুখেই পড়েছে!

লেখক: আমিনুল ইসলাম
ইসলামপুর, সাপাহার, নওগাঁ।

মতামত

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে