জার্মানে বসবাসরত মুসলিমরা হুমকির আতঙ্ক ও ভয়ে আছেন

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ এইমাসে(জুলাই) মাসে জার্মানির চারটি শহরের মসজিদে বোমা হামলার হুমকি দেয়া হয়েছে। শেষপর্যন্ত সেগুলো ভুয়া প্রমাণিত হলেও ভয়ে আছেন দেশটির মুসলিমরা। খবর ডয়চে ভেলের।

জার্মানির কোলন শহরে অবস্থিত দেশটির সবচেয়ে বড় মসজিদ এবং ইজালন, ডুইসবুর্গ, মানহাইম ও মিউনিখের মসজিদে হুমকি দেয়া হয়। তাই মুসলিমরা আরও নিরাপত্তা চাইছেন।

!-- Composite Start -->
Loading...

জার্মানির সেন্ট্রাল কাউন্সিল অব মুসলিমসের মুখপাত্র নুরহাত সয়কান জানান, এই অবস্থায় মুসলিমদের মধ্যে আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে আনা সরকারের দায়িত্ব বলে মনে করেন তিনি।

তিনি বলেন, সব ধর্মের মানুষ যেন নির্ভয়ে তাদের ধর্মপালন করতে পারেন, তা জার্মান সরকারকে নিশ্চিত করতে হবে। আমাদের অস্তিত্বের মতো গণতন্ত্রও ঝুঁকির মুখে। এটা অগ্রহণযোগ্য।

জার্মানির সেন্ট্রাল কাউন্সিল অব মুসলিমসের মুখপাত্র আরও জানান, মসজিদে নিরাপত্তা বাড়াতে সরকারকে অনুরোধ করা হয়েছে। তবে সরকার এখনও কোনও ধরনের পদক্ষেপ নেয়নি।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মতে, ২০১৭ সালে দেশটিতে ২৩৯টি মসজিদে হামলা হয়। এই সময়ে ইসলাম ধর্মের প্রতি ভয় ও ঘৃণার কারণে এক হাজার ৭৫টি অপরাধের ঘটনা ঘটে।

এখনও ২০১৮ সালের তথ্য প্রকাশিত হয়নি। তবে এক হিসাব অনুসারে, ২০১৮ সালের প্রথম নয় মাসে এ ধরনের হামলায় ৪০ জন আহত হন। আগের বছর ২৭ জন আহত হন।

সেন্ট্রাল কাউন্সিল অব মুসলিমসের চেয়ারম্যান আইমান মাজায়েক বলেন, ২০১৭ সাল থেকে মুসলিমদের ওপর হামলার তথ্য রেকর্ড করা হচ্ছে। হামলার সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

তিনি বলেন, শারীরিকভাবে মুসলিমদের আঘাত করা হচ্ছে। এই আঘাত দিন দিন সহিংস হয়ে উঠছে। হামলার সংখ্যা বাড়বে। কারণ অনেক মুসলিমরা হামলার কথা পুলিশকে জানান না।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.