জনসভায় গণ পকেটমার, একজনকে গণধোলাই

0
113

মেহেরপুর, ১৬ ফেব্রুয়ারি – মেহেরপুর গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজ প্রাঙ্গণে জেলা আওয়ামী লীগের জনসভায় শতাধিক মানুষের পকেটমারের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এক যুবককে গণপিটুনি দিয়ে থানায় সোপর্দ করেছেন স্থানীয়রা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জনসভায় প্রবেশপথে নেতাকর্মীদের ব্যাপক সমাগম ছিল। চলাচলের এ পথে ভিড় থাকার সুযোগ কাজে লাগিয়েছে পকেটমাররা। মানুষের উপচেপড়া ভিড়ের মধ্যে কে যে কার পকেট মেরেছে তা বোঝার উপায় ছিল না।

ভুক্তভোগী পূর্বমালসাদহ গ্রামের শামীম আহম্মেদ বলেন, ‘জনসমাগমস্থলে প্রবেশের কিছুক্ষণ পরে দেখি আমার ফোনটি নেই। ফোনটি আমার প্যান্টের ডান পকেটে ছিল। এ ঘটনায় থানায় জিডি করতে এসেছি।’

আরও পড়ুন : ৩২ সোনার বিস্কুটসহ আটক ২

গাংনী থানায় উপস্থিত আরেকজন ভুক্তিভোগী হেমায়েতপুর বাজার কমিটি সাধারণ সম্পাদক আলমীর হোসেন বলেন, ‘ব্যবসায়িক কাজ সেরে বাসায় না ফিরে সরসারি জনসভায় উপস্থিত হই। এ সময় পকেটে ৩০ হাজার টাকা ছিল। কোন ফাঁকে যে পকেটমার হয়েছে তা বুঝতে পারিনি।’

গাংনী থানার সেকেন্ড অফিসার আহাসান হাবীর বলেন, ‘১০/১৫ জন থানায় অভিযোগ দিতে এসেছেন। তাদের কাছ থেকে জিডি নেওয়া হচ্ছে।’

গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলুর রহমান বলেন, ‘ভুক্তভোগীদের অভিযোগ নিয়ে মোবাইল ও টাকা উদ্ধারের চেষ্টা করা হচ্ছে। অপরদিকে গণধোলাইয়ে আহত যুবকের প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা গেলে প্রাথমিক তথ্য পাওয়া যেতে পারে।’

সূত্র : প্রতিদিনের সংবাদ
এন এইচ, ১৬ ফেব্রুয়ারি

Source link