চীনে ক্রিপ্টোকারেন্সি অবৈধ ঘোষণা

78


আন্তর্জাতিক ডেস্ক

চীনে সবরকমের ডিজিটাল মুদ্রার লেনদেন অবৈধ ঘোষণা করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক। শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) চীনের পিপলস ব্যাংক অব চায়নার ওয়েবসাইটে বলা হয়, বিদেশি ভার্চুয়াল কারেন্সি এক্সচেঞ্জ যা ইন্টারনেট ব্যবহার করে লেনদেন হয়ে থাকে, সেরকম আর্থিক কার্যকলাপ অবৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে। বিদেশি ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জের কর্মীদেরও তদন্তের আওতায় আনা হবে।

পিপলস ব্যাংক অব চায়না বলেছে, ক্রিপ্টো-সম্পর্কিত লেনদেনের পর্যবেক্ষণ এবং অনুমানমূলক বিনিয়োগের উৎস জানার জন্য ব্যাংকের ব্যবস্থাকে ইতিমধ্যে উন্নত করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পাশাপাশি ব্যাংকিং, সিকিউরিটিজ এবং ফরেন এক্সচেঞ্জ রেগুলেটরসহ দশটি সংস্থা ক্রিপ্টোকারেন্সি কার্যকলাপ নির্মূল করার জন্য একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার করেছে। এই প্রথমবার বেইজিংভিত্তিক এজেন্সিগুলো সমস্ত ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পর্কিত কার্যকলাপকে স্পষ্টভাবে নিষিদ্ধ ঘোষণা করল।

উল্লেখ্য, ক্রিপ্টোকারেন্সি মুদ্রার কোনো কেন্দ্রীয় ব্যাংক বা নির্দিষ্ট দেশ নেই। ইন্টারনেটের এ মুদ্রার লেনদেন হয়ে থাকে। বিটকয়েনের অন্যতম শীর্ষ একজন পৃষ্ঠপোষক মার্কিন ধনকুবের এলন মাস্ক।

সম্প্রতি এ মুদ্রার দর অনিয়ন্ত্রিতভাবে উঠানামা করছে বলে লক্ষ্য করা যাচ্ছে।  ২০১৩ সালে বিটকয়েনের দর সর্বোচ্চ উঠে ৪০০ ডলার পর্যন্ত। তবে মাত্র ৪ বছর পর এ মুদ্রার দাম ২০ হাজার ডলার পর্যন্ত উঠে যায়। উত্থানপতনের পর বর্তমানে এ মুদ্রার দর ৩০ থেকে ৫০ হাজার ডলারের মধ্যে উঠানামা করছে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় ক্রিপ্টোকারেন্সির প্রধান মূদ্রা বিটকয়েনের দর ৩ শতাংশ পতন হয়েছে। কয়েনমেট্রিকসের তথ্য অনুযায়ী, দ্বিতীয় বৃহত্তম ক্রিপ্টো মূদ্রা ইথেরিয়ামের দরপতন হয়েছে ৭ শতাংশ।

উল্লেখ্য যে, চলতি মাসে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে মধ্য আমেরিকার এল সালভাদরের বাজারে লেনদেনের মাধ্যম হিসেবে বিটকয়েনকে বৈধতা দেওয়া হয়।

সারাবাংলা/আইই





Source link