চান্দগাঁও থানার অভিযানঃ ০১টি এলজি, ০৫ রাউন্ড কার্তুজ, ০১টি স্টীলের তৈরী ধামা ও ৫৪৫ পিচ ইয়াবা সহ গ্রেফতার ০১ জন

0
127

সিএমপি’র উত্তর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার জনাব বিজয় বসাক, বিপিএম, পিপিএম(বার) মহোদয়ের দিকনির্দেশনায় অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার(উত্তর) জনাব আশিকুর রহমান এবং পাঁচলাইশ জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার জনাব দেবদূত মজুমদার মহোদয়ের তত্ত্ববধানে চান্দগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ আতাউর রহমান খোন্দকার এর নেতৃত্বে চান্দগাঁও থানার ইন্সপেক্টর(তদন্ত) জনাব রাজেস বড়–য়া ও সঙ্গীয় এসআই/কাউছার হামিদ, এসআই/মফিজুর রহমান, এসআই/অধীর চৌধুরী, এএসআই/ মোহাম্মদ ফোরকান, এএসআই/ মোঃ সাইফুদ্দিন মানিক, এএসআই/ জুয়েল বড়ুয়া, এএসআই/মোঃ কলিম উদ্দিন, এএসআই/মোঃ সালাউদ্দিন সহ ফোর্সের সহায়তায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করিয়া বায়েজীদ বোস্তামী থানাধীন রৌফাবাদ এলাকা হতে ৩০/০৯/২০২০ইং তারিখ অনুমান ১৭.৩০ ঘটিকার সময় চান্দগাঁও থানার সন্ত্রাসী তালিকার ০১নং তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী মোঃ ইসমাইল হোসেন প্রকাশ টেম্পু(৩৫) , পিতা- ইউসুফ প্রকাশ বাম্পার ইউসুফ, মাতা- মাহফুজা বেগম, সাং- ঝর্না কলোনী, পশ্চিম ফরিদার পাড়া, সিরাজ টাওয়ার এর পার্শ্বে, থানা- চান্দগাঁও, জেলা- চট্টগ্রাম কে আটক করিয়া ধৃত আসামীকে সাথে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে আসামীর স্বীকারোক্তি ও দেখানো মতে চান্দগাঁও থানাধীন বহদ্দারহাট মোড়স্থ যমুনা ব্যাংকের পিছনে পরিত্যক্ত ভবন হইতে নিম্মবর্ণিত অস্ত্র, গুলি ও মাদক উদ্ধার করা হয়। বর্ণিত আসামীর নামে চান্দগাঁও থানা সহ সিএমপি’র বিভিন্ন থানায় খুন, ধর্ষন, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, ডাকাতি ও অস্ত্র আইনে ২৫টি মামলা রহিয়াছে।

উদ্ধারকৃত আলামত ঃ-
১) ০১টি দেশীয় তৈরী এল.জি(অস্ত্র)।
২) ০৫টি কার্তুজ (গুলি)।
৩) ০১টি স্টীলের তৈরী ধামা।
৪) ৫৪৫(পাঁচশত পয়তাল্লিশ) পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট।