চাকরির বয়স ৩৫ না করার পক্ষে যে যুক্তি দিলেন প্রধানমন্ত্রী

চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ বছর না করার পক্ষে যুক্তি দেখিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ৩৫ থেকে ৩৭তম বিসিএসের একটি পরিসংখ্যান তুলে ধরে তিনি এ যুক্তি দেখান। সেখানে দেখা গেছে, যারা বেশি বয়সী তাদের বিসিএসে পাশের হার খুবই কম।

আজ সোমবার বিকেলে গণভবনে চীন সফরের পর আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

!-- Composite Start -->
Loading...

চাকরিতে বয়স বাড়ানোর প্রসঙ্গে বেসরকারি বৈশাখী টেলিভিশনের এক সাংবাদিকের প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এখন জন্ম নিবন্ধন হয়। বয়স আর লুকানো যায় না। যদি একটা ছেলে বা মেয়ে নিয়মিত পড়াশোনা করে তাহলে তো ১৬ বছরে এসএসসি পাশ করে। এরপর ১৮ বছরে এইচএসসি পাশ করে। এরপর চার বছর অনার্স তারপর এক বছর মাস্টার্স। ২৩ বছরে মাস্টার্স শেষ করে সরকারি চাকরির জন্য পিএসসিতে আবেদন করতে পারে। তারপরেও যদি দুই এক বছর দেরিও হয় তাহলে এটা ২৪ থেকে ২৫ পর্যন্ত হতে পারে।’

এরপর প্রধানমন্ত্রী তিনটি বিসিএসের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘৩৫তম বিসিএসে ২৩ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে পাশের হার ৪০.৭ ভাগ, ২৫ থেকে ২৭ বছরের মধ্যে পাশের হার ৩০.২৯, ২৭ থেকে ২৯ বয়সে ১৩.১৭ শতাংশ প্রার্থী পাশ করেছেন। এ ছাড়া ২৯ বছরের বেশি বয়সের প্রার্থীরা ৩.৪৫ ভাগ পাশ করেছেন।’

৩৬তম বিসিএসে ২৩ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে পাশের হার ৩৭.৪৫ ভাগ, ২৫ থেকে ২৭ বছরের মধ্যে পাশের হার ৩৪.৭৮, ২৭ থেকে ২৯ বয়সে ১৯.৮৯ শতাংশ প্রার্থী পাশ করেছেন। এ ছাড়া ২৯ বছরের বেশি বয়সের প্রার্থীরা ৩.২৩ ভাগ পাশ করেছেন।

এ ছাড়া ৩৭তম বিসিএসে ২৩ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে পাশের হার ৪৩.৬৫ ভাগ, ২৫ থেকে ২৭ বছরের মধ্যে পাশের হার ২৩.৩৫, ২৭ থেকে ২৯ বয়সে ৭.২০ শতাংশ প্রার্থী পাশ করেছেন এবং ২৯ বছরের বেশি বয়সের প্রার্থীরা ০.৬১ ভাগ পাশ করেছেন।’

প্রধানমন্ত্রী প্রশ্ন করে বলেন, ‘এখন আপনারাই, বলেন চাকরির বয়স বাড়ালে কি হবে?’

প্রধানমন্ত্রী চাকরিতে প্রবেশের বয়স না বাড়ানোর পক্ষে যুক্তি দিয়ে বলেন, ‘চাকরি প্রার্থীদের যদি ৩৫ বছর বয়সে চাকরিতে প্রবেশের সুযোগ দেওয়া হয় তত দিন তাদের ঘর-সংসার বউ বাচ্চা হবে। এই বয়সে এসব সামলে চাকরির পরীক্ষা দিতে হবে। তখন তো আরও করুণ অবস্থা হয়ে যাবে।’

সরকারপ্রধান আরও বলেন, ‘যদি কোনো প্রার্থী ৩৫ বছরে চাকরিতে প্রবেশ করে তাহলে প্রশিক্ষণের পর চাকরি শুরু করতে করতে তার বয়স হবে ৩৭। এই বয়সে চাকরিতে প্রবেশ করলে তার চাকরির বয়স ২৫ বছর হবে না। এটি না হলে তিনি চাকরিতে পূর্ণ পেনশনও পাবেন না।’

মতামত দিন

Post Author: bdnewstimes