চট্টগ্রামে ক্রমাগত বেড়েই চলছে অপ্রাপ্ত বয়স্ক চালকের সংখ্যা, টিআই প্রশাসনের প্রয়োজন অর্থ!

চৈতী সেন, চট্টগ্রাম মহাঃ প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম নগরীর ২নং গেইটে হিউমেন হলার (যাত্রীবাহী মিনি পিকআপ) এর ধাক্কায় শুক্রবার সকালে এক গর্ভবতী মহিলার মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। নিহত মহিলার নাম খাদিজা বেগম। এদিকে কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্ট মোঃ সাজ্জাদ হোসেনের দ্রূত তৎপরতায় চালক এবং গাড়িটিকে তাৎক্ষনিক ধাওয়া করে আটক করে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। আটককৃত ড্রাইভারের বয়স আনুমানিক ১০-১২বছর বলে জানান মোঃ সাজ্জাদ হোসেন।

এদিকে ফেইসবুকে টিআই লোভেল এর সমালোচনা করে একজন লিখেন..

!-- Composite Start -->
Loading...

“আমি TI সুমন জাহিদ লোভেল ভাই এর সমালোচনা করবো এজন্য যে,এসব (১৭-) অল্প বয়সী ড্রাইভার গুলো কিভাবে রোড পারমিট নিয়ে ওনার রুটে গাড়ি চালায়?
তা বুজে আসে না !!গাড়ি গুলি ব্রেন্ড করা হক!
আমি এসব কাজের এর ত্রীব্র প্রতিবাদ জনাই।
ঘৃণা প্রকাশ করছি
সে তো কারো না কারো বোন,মেয়ে”

অন্যদিকে গত দুই বছরে চট্টগ্রাম নগরীর অক্সিজেন – ২নং গেইটে বেড়েই চলেছে লাইসেন্স বিহীন চালক এবং অপ্রাপ্ত বয়স্ক ড্রাইভারের সংখ্যা।এছাড়াও হাটহাজারী মুরাদপুর রুট, ৩ নম্বর বাসেও দেখা মিলে ১৭বছরের নিচে এসব চালকদের।

এসব অবৈধ ও লাইসেন্স বিহীন চালক হরহামেশা কিভাবে গাড়ি চালায় তা জানতে যোগাযোগ করা হয় টিআই মোঃ সুমন জাহিদ নোভেল এর সাথে।

তিনি প্রতিবেদকের পরিচয় জানতে চান। প্রসঙ্গক্রমে তিনি বলেন, ”আমাকে গাড়ির মালিক পক্ষকে ফোন করে,আমি বলেছি মানুষ মেরেছো কোন ছাড় দেয়া হবে না মামলা হবে। এক পর্যায়ে প্রতিবেদক এ রুটে বেড়ে চলা পারমিট বিহীন গাড়ি, অপ্রাপ্ত বয়স্ক চালক ও এর মালিকদের বিরুদ্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার জন্য তাকে অনুরোধ জানান।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.