গোয়েন্দা সেজে জনপ্রতিনিধির সঙ্গে প্রতারণার চেষ্টা, গ্রেফতার ১

104


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলায় গোয়েন্দা কর্মকর্তা সেজে ইউনিয়ন পরিষদের এক চেয়ারম্যানের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (০১ অক্টোবর) উপজেলার ভুজপুর থানার বাগানবাজার ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয় থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গ্রেফতার অমল কান্তি বণিক (৫৫) কুমিল্লা জেলার বাসিন্দা। তার বাবার নাম মৃত নরেন্দ্র চন্দ্র বণিক।

ভুজপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জয়নাল আবেদিন সারাবাংলাকে জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে অমল বাগানবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রুস্তম আলীর বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রীকে গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআইয়ের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তা হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কর্মরত আছেন বলে পরিচয় দেন। তিনি চেয়ারম্যানের খোঁজখবর নিতে থাকলে স্ত্রী ফোন করে তাকে বিষয়টি জানান। রুস্তম আলী চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা উপলক্ষে চট্টগ্রাম শহরে ছিলেন। তিনি স্থানীয় ইউপি সদস্য রফিক ও ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের কম্পিউটার অপারেটর রফিকুলকে বাড়িতে পাঠান। তারা সম্মান জানিয়ে অমলকে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে নিয়ে যান।

‘রাত সাড়ে ১০টার দিকে চেয়ারম্যান শহর থেকে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে পৌঁছেন। তখন অমল কান্তি আবারও একই পরিচয় দিয়ে তার বাড়িতে রাতযাপনের প্রস্তাব দেন। কিন্তু চেয়ারম্যান তাতে সম্মত না হলে অমল চলে যান। এরপর শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে অমল আবারও ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে গিয়ে চেয়ারম্যানের খোঁজখবর নিতে থাকেন। জানতে পেরে চেয়ারম্যান পুলিশ ও এনএসআইয়ের কার্যালয়ে যোগাযোগ করেন। দুপুরের দিকে ওসি এবং এনএসআইয়ের একজন সহকারী পরিচালক সেখানে পৌঁছান। তারা খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারেন, অমল কান্তি বণিক একজন প্রতারক।’

এসআই জয়নাল আবেদীন আরও বলেন, ‘সামনে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। চেয়ারম্যানদের মনোনয়ন পাওয়ার একটা বিষয় আছে। সেজন্য এনএসআই কর্মকর্তা সেজে টাকাপয়সা হাতানোর জন্য অমল কান্তি সেখানে গিয়েছিল বলে জানিয়েছে। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চেয়ারম্যান রুস্তম আলী বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।’

সারাবাংলা/আরডি/এমও





Source link