গত ১০ বছরে প্রথমবার হলো এমন! -Deshebideshe

0
70

বর্ষসেরা লড়াই, অথচ লিওনেল মেসি কিংবা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর নাম নেই! এবারের উয়েফা বর্ষসেরার সংক্ষিপ্ত তালিকা সেটাই বলছে। পুরস্কারটির গত ১০ বছরের ইতিহাসে প্রথমবার হলো এমনটা, যেখানে মেসি কিংবা রোনালদোর কেউই নেই। তাদের ‘ব্যর্থতার’ মৌসুমে আলো ছড়িয়ে বর্ষসেরার লড়াইয়ে রবার্ত লেভানদোভস্কি, মানুয়েল নয়ার ও কেভিন ডি ব্রুইন।

গত ১০ বছরে উয়েফা বর্ষসেরার সংক্ষিপ্ত তিনে মেসি না হলে রোনালদো থেকেছেন। ফুটবলবিশ্বের জন্য এবারের তালিকা তাই একটু চোখেই লাগছে। গত ‍এক দশকে পুরস্কারটির লড়াইয়ে ৯বার ছিলেন রোনালদো, জিতেছেন তিনবার। অন্যদিকে মেসি ছিলেন ছয়বার, যেখানে দুইবার হাতে তুলেছেন সেরার পুরস্কার।

সময়ের দুই সেরা খেলোয়াড়কে পেছনে ফেলে গতবার পুরস্কারটি জিতেছিলেন লিভারপুলের ডিফেন্ডার ভার্জিল ফন ডাইক। এবার তো লড়াইয়ে থাকার সুযোগই হলো না তাদের। ক্লাব ফুটবলে, বিশেষ করে ‍চ্যাম্পিয়নস লিগ ভালো কাটেনি তাদের। রোনালদো জুভেন্টাসের জার্সিতে সিরি ‘আ’ জিতলেও চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে বিদায় নেন শেষ ষোলো থেকে।

মেসির অবস্থা তো আরও খারাপ। ট্রফিহীন মৌসুম কাটাতে হয়েছে তাকে। সঙ্গে শিল হয়ে বিঁধেছে চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলের হার। শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়নও হয়েছে জার্মান ক্লাবটি। তাদের এই সাফল্যে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন লেভানদোভস্কি। শিরোপা জেতার পথে ১৫ গোল করা পোলিশ স্ট্রাইকার এবারের পুরস্কারের দৌড়ে ফেভারিট।

আরও পড়ুন- ঘানায় সড়কে ঝরল ৮ ফুটবলারের প্রাণ

উয়েফা বর্ষসেরার দৌড়ে ডি ব্রুইন, লেভানদোভস্কি ও নয়ারতার বায়ার্ন সতীর্থ নয়ারও আছেন লড়াইয়ে। ফাইনালে দুর্দান্ত পারফর্ম করা জার্মান গোলকিপার এক মৌসুমে সবচেয়ে বেশি ‘ক্লিনশিট’ রাখার নতুন রেকর্ড গড়েছেন। ইউরোপসেরার শিরোপা উঁচিয়ে ধরার পর ব্যক্তিগত অর্জনেও বড় প্রাপ্তি যোগ হওয়ার হাতছানি তার সামনে।

চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা জেতা না হলেও ২০১৯-২০ মৌসুমটা অসাধারণ কেটেছে ডি ব্রুইনের। লিভারপুলের কাছে তার দল ম্যানচেস্টার সিটি প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা হারালেও ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে তিনি ছিলেন উজ্জ্বল। তাই বর্ষসেরা লড়াইয়ে তার জায়গাও বেশ শক্তিশালী।

সূত্র:  বাংলা ট্রিবিউন
এমএ/ ২৩ সেপ্টেম্বর

Source link