গণতান্ত্রিক আন্দোলন-সংগ্রামে নিবেদিতপ্রাণ শহীদ তাজুল : কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন

0
368

স্বৈরাচারবিরোধী গণতান্ত্রিক আন্দোলন ও মানবমুক্তির সংগ্রামে নিবেদিতপ্রাণ সৈনিক ছিল শহীদ তাজুল বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব ও জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের আহ্বায়ক এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

তিনি বলেন, যে গণতন্ত্রের স্বপ্ন নিয়ে তাজুল ইসলাম জীবন উৎসর্গ করেছিলেন, তার মত্যুর ৩৬ বছর পর সেই গণতন্ত্র আজও প্রতিষ্ঠিত হয় নাই।

রবিবার (১ মার্চ) নয়াপল্টেনের সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে শহীদ তাজুল দিবস উপলক্ষে জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের শ্রমিক শ্রেণি আজ নানাভাবে নির্যাতিত ও অবহেলিত। বর্তমান বাস্তবতায় জীবন ধারণের জন্য যে নু্যুনতম মজুরি দরকার তাও তারা পায় না। আইএলও কনভেনশন অনুযায়ী সর্বক্ষেত্রে শ্রমিকদের মৌলিক অধিকার আজও প্রতিষ্ঠিত হয়নি। বাড়ি ভাড়া, গ্যাস, পানি, বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির ফলে শ্রমজীবী মানুষের জীবন আজ দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে। কিন্তু শ্রমিকদের দাবি আদায়ে তেমন কোনো আন্দোলন হয় না।

তিনি আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ ডিগ্রি নিয়েও শুধু সমাজ পরিবর্তন ও শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ে আদমজী জুট মিলে বদলী শ্রমিকের চাকরি নিয়েছিলেন তাজুল ইসলাম। তার আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে শ্রমিকদের মৌলিক অধিকার আদায়ে নতুন মাত্রা যোগ হয়েছিল। এরশাদ সরকার শ্রমিকদের দাবি মেনে নিয়ে স্কপের সঙ্গে চুক্তি করতে বাধ্য হয়েছিল। তার নিঃস্বার্থ লড়াই, সংগ্রাম ও আত্মত্যাগ শ্রমিক শ্রেণি ও শ্রমিক আন্দোলনের আদর্শ ও প্রেরণা হয়ে থাকবে।

সংগঠনের সমন্বয়ক মো. মহসিন ভুইয়া’র সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহন করেন এনডিপি মহাসচিব ও কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, জনতা ফ্রন্টের সভাপতি দীপু মীর, কৃষক নেতা তাইজুদ্দিন আহমেদ, নারী নেত্রী মতিয়ারা চৌধুরী, শ্রমিক নেতা আবদুল্লাহ আল কাউছারী প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে