ক্ষুধা বোঝে না লকডাউন-বোঝে না কোয়ারেন্টাইন : জেবেল

0
358

করোনা মোকাবিলায় চলমান সংকটের সবচেয়ে বেশী ভুক্তভোগী শ্রমজীবী ও দরিদ্র মানুষের কর্মসংস্থান ও বাঁচাবার জন্য সরকার ঘোষিত প্রণোদনায় বিশেষ বরাদ্দ রাখার দাবি করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি বলেছেন, ‘ক্ষুধা কোন বাঁধা মানে না, বোঝে না লকডাউন-বোঝে না কোয়ারেন্টাইন-বোঝে না সামাজিক বা শারীরিক দূরত্বও।

তিনি বলেন, দেশের দরিদ্র মানুষ, কৃষক-শ্রমিকের খাদ্যের নিরাপত্তা ও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা না হলে প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদানার কোন সুফল দেশবাসী ভোগ করতে পারবে না। ফলে, প্রণোদনার অর্থ খেটে খাওয়া মানুষের স্বার্থ সংরক্ষিত না হলে, তা লুটেরাদের পকেস্থ হবে।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) গণমাধ্যমে প্রেরিত দলের মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের মহাদুর্যোগ মোকাবেলা, প্রতিরোধ, অর্থনীতিতে সচল রাখার উদ্দেশ্যে বিশেষ তহবিল গঠন করে বিভিন্ন খাতে ব্যায়ের যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে দেশের মানুষের কর্মসংস্থানের বিষয়টি স্পষ্ট করা হয়নি। একই সাথে শ্রমিক, কৃষক, ক্ষেতমজুর, দিনমজুর, কামার, কুমার, ভুমিহীনসহ দেশের ছিন্নমুল মানুষের স্বার্থ রক্ষার বিষয়টিও স্পস্ট নয়। তাদের আগামী ৬ মাসের খাদ্য নিরাপত্তার বিষয়টিও উপেক্ষিত হয়েছে। অন্যদিকে, পোল্ট্রি খামারি, কৃষিভিত্তিক শিল্পকে প্রণোদনা দেওয়া হলেও মূল কৃষিখাতকে প্রণোদনার বাইরে রাখা হয়েছে। ফলে এ দুর্যোগ সময়ে যখন খাদ্য উৎপাদন ও সরবরাহ মূল বিষয় হয়ে দাঁড়াবে সেখানে কৃষকের জন্য প্রণোদনা প্যাকেজ গুরুত্বপূর্ণ ছিল।

জেবেল রহমান গানি বলেন, করোনা পরিস্থিতির পর দেশের দরিদ্রের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পাবে। বিদ্যমান অর্থনৈতিক বৈষম্যও নিদারুনভাবে বৃদ্ধি পাবে। সামাজিক নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়তে পারে। সে বিষয়েও প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদায় কর্মপরিকল্পনা রাখা প্রয়োজন ছিল।

গার্মেন্টস শিল্প নিয়ে সরকারের সমন্বয়হীনতায় সংকট আরও বৃদ্ধি করবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, গার্মেন্টস শিল্প খোলা রাখা এবং বন্ধ রাখা নিয়ে তেলেসমাতি কারবার শ্রমিকদের প্রচন্ড ঝুঁকিতে ফেলেছে ও ক্ষতিগ্রস্থ করেছে। এতে করোনা সংক্রমণ বিস্তারে সহায়ক হয়েছে। এসব প্রশ্নে সরকারের একক দলীয় দৃষ্টিভঙ্গি জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতেও বিঘ্ন সৃষ্টি করছে- যার পরিণাম কারো জন্যই শুভ হবে না, হতে পারে না।

তিনি বলেন, করোনায় সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকট মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনা প্রশংসনীয় হলেও দুর্নীতি-দুবৃত্তায়নের কারণে এটা যথাযথ বাস্তবায়ন না হলে দেশ বিপর্যয়ের ঝুকিতে পড়বে।

জেবেল রহমান গানি সামগ্রিক প্রক্রিয়ায় সব রাজনৈতিক দলকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য ও জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠার লক্ষে প্রধানমন্ত্রীর সর্বদলীয় বৈঠক ডাকার বাংলাদেশ ন্যাপ’র আহ্বান পুুনর্ব্যক্ত করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে