ক্লাসরুমেই অশ্লীলতা! ছাত্রছাত্রীর ভিডিও ভাইরাল হতেই তোলপাড় মগরায়

প্রতিবেশী ডেস্ক: শিক্ষাঙ্গনে অভব্যতা! দুই স্কুলপড়ুয়ার কাণ্ডে রীতিমতো হতভম্ব হুগলির মগরা বাগহাটি রামবিলাস ঘোষ হাইস্কুলের শিক্ষকরা। কী করছিল ওই দুই পড়ুয়া? সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, ক্লাসরুমের মধ্যেই আলিঙ্গনরত অবস্থায় বসে এক ছাত্র এবং এক ছাত্রী। কখনও কখনও তাদের ঘনিষ্ঠতা ছাড়িয়ে যাচ্ছে শালীনতার মাত্রা। স্কুলে তো বটেই, প্রকাশ্যে কোনও জায়গায়ই এমন আচরণ বরদাস্ত করা যায় না। তাও আবার দু’জন অপ্রাপ্তবয়স্ক পড়ুয়ার।

স্বাভাবিকভাবেই এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই তোলপাড় শুরু হয়ে যায় হুগলির মগরা এলাকায়। পরে জানা যায়, ভিডিওটিতে দেখা দু’জন মগরা বাগহাটি রামবিলাস ঘোষ হাইস্কুলের দুই পড়ুয়া। ছেলেটি দ্বাদশ শ্রেণির কমার্সের পড়ুয়া আর মেয়েটি একাদশ শ্রেণির আর্টসের পড়ুয়া। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক বলে জানা গিয়েছে। মাঝে মাঝেই নাকি তাঁদের স্কুলে এমন ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখা গিয়েছে। তবে, বৃহস্পতিবার তাদের সহপাঠীরাই এই ভিডিও তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দিয়েছে।

ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই ঘটনার নিন্দায় সরব হয়েছেন অভিভাবকরা। এই ঘটনায় তাঁরা রীতমতো উদ্বিগ্ন। স্কুলের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে বলে অভিমত তাদের। ঘটনার পর অবশ্য নড়েচড়ে বসেছে স্কুল কর্তৃপক্ষও। প্রধান শিক্ষক পার্থপ্রতিম মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “আমাদের স্কুল যথেষ্ট ঐতিহ্যমণ্ডিত । ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে এধরনের আচরণ মানা যায় না । ওদের দু’জনকেই সাসপেন্ড করা হয়েছে। তবে, ওদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে টেস্ট পরীক্ষায় বসার অনুমতি দেওয়া হবে। ওরা কোনও ক্লাস করতে পারবে না।”

আগামী দিনে যাতে এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয় সেদিকেও নজর রাখছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। প্রধান শিক্ষক জানিয়েছেন, “প্রত্যেক ক্লাসরুমের বাইরে সিসিটিভি আছে। এবার আমরা ক্লাসরুমের ভিতরেও সিসিটিভি লাগানোর ব্যবস্থা করব ।” সেইসঙ্গে তিনি জানান, স্কুলে মোবাইল ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কেউ মোবাইল নিয়ে ধরা পড়লে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.