করোনার পাশাপাশি বায়ুদূষণ নিয়েও উদ্বিগ্ন চিকিৎসকরা, কলকাতায় শিশু ও বয়স্কদের স্বাস্থ্যের উপর এর প্রভাব কতটা ?– News18 Bangla

106


কলকাতা: শুধুমাত্র বায়ুদূষণের কারণেই প্রতি বছর বিশ্বে মৃত্যু হয় প্রায় ৭০ লক্ষ মানুষের, মত বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার। দীর্ঘদিন ধরে বিষাক্ত বায়ু ফুসফুসে প্রবেশ করার ফলে ফুসফুসে সংক্রমণ হচ্ছে। ধীরে ধীরে ফুসফুসের যে ক্ষয় হচ্ছে তা সাধারণ চোখে মানুষ বুঝতে পারেন না। এর ফলস্বরূপ হঠাৎ করেই শ্বাসযন্ত্রে চাপ, বুকে শ্লেষ্মা বসে যাওয়ার মতো ঘটনা। সব মিলিয়ে কমবেশি সব মানুষেরই ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্ত। আর কোভিডের ভাইরাসও হানা দিচ্ছে ফুসফুসেই। সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ফুসফুস। আর যার ফলে যে কোনও বয়সেই ধরে যাচ্ছে নিউমোনিয়া। কোভিড নেগেটিভ হলেও বুকে সংক্রমণের জেরে পুরো সেরে উঠতে সময় লেগে যাচ্ছে ২০ দিনের বেশি। জাতীয় চিকিৎসক দিবস উপলক্ষে সুইচঅন ফাউন্ডেশন কলকাতার বিশিষ্ট চিকিৎসকদের নিয়ে একটি রাউন্ড টেবিল কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়েছিল ৷ ১০ বছরের কম বয়সী শিশুদের, ৫০ বছরের বেশি বয়সী মানুষ এবং নিম্ন আয়ের গৃহস্থদের স্বাস্থ্য সমস্যার জন্য বায়ূদূষণ কতটা দায়ী হতে পারে, তা নিয়েই আলোচনা হয় এই বৈঠকে ৷ অনুষ্ঠানে ৩০টিরও বেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন ৷

কোভিডের মতোই বায়ুদূষণও শহরগুলিতে মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যার কারণ হয়ে উঠেছে ৷ পশ্চিমবঙ্গেও বায়ুর দূষণমাত্রা দিন দিন বাড়ছে ৷ বিশেষত শীতের মাসগুলিতে এটি সবচেয়ে খারাপ পর্যায়ে চলে যায় ৷ ২০২০ সালে ল্যানসেট-আইসিএমআর প্রকাশিত রিপোর্টে বলা হয়েছে, যে এ রাজ্যে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যার তুলনায় বায়ু দূষণের কারণে মৃত্যু প্রায় ৭ গুণ বেশি ছিল ৷ বায়ু দূষণ কো-মর্বিডিটির সমস্যা আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে এবং কোভিড-১৯-এর মতো পালমোনারি এবং কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা থেকে মৃত্যুর সম্ভাবনা বাড়ায় ৷ দীর্ঘসময় ধরে বায়ুর দূষণের উচ্চ মাত্রার সংস্পর্শে শিশুদের মধ্যে হাঁপানি, সিওপিডি. ডায়াবেটিস এবং অন্যান্য জটিল রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে বলে জানিয়েছেন অ্যাপোলো গ্লেনেগলস হাসপাতালের পেডিয়াট্রিক কনসালট্যান্ট ডাঃ কৌস্তভ চৌধুরী ৷ পাশাপাশি বায়ু দূষণ রোধের বিষয়টিকেও অগ্রাধিকার দেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন কলকাতার ফর্টিস হাসপাতালের জরুরি ও মেডিসিন বিভাগের পরামর্শদাতা ও প্রধান ডাঃ সংযুক্তা দত্ত ৷ কারণ কলকাতায় বায়ু দূষণের সঙ্গে যুক্ত স্বাস্থ্য সমস্যাগুলি ক্রমশ বেড়েই চলেছে ৷ প্রায় ২০০০ জনের উপরে করা গবেষণায় দেখা গিয়েছে কলকাতা, ব্যারাকপুর এবং হাওড়ায় ১০ বছরের কম বয়সী শিশুরা ৩ গুণ বেশি এবং ৫০ বছরের বেশি বয়সের শিশুরা দেড়গুণ বেশি শ্বাসকষ্টের সমস্যা, হাঁচি, কাশি, গলা ব্যথা, সাইনাসে আক্রান্ত হয়েছে ৷ পাশাপাশি মাসে ৫০০০ টাকা ও তার কম উপার্জনকারী মানুষরাও অনেক গুণ বেশি শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় ভোগেন বলে গবেষণায় দেখা গিয়েছে ৷

Published by:Siddhartha Sarkar

First published:



Source link