কক্সবাজারের ঈদগাহ ইউনিয়নে নিরাপদ অভিবাসনে মধ্যস্থতাকারীদের নিয়ে পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত।

0
60

স্থানীয় গ্রিভেন্স ম্যানেজম্যান্ট কমিটি ও নিরাপদ অভিবাসনে মধ্যস্থতাকারীদের ( মিডলম্যান) নিয়ে কক্সবাজার জেলার ঈদদগাহ ইউনিয়নের হাজী নুর কমিউনিটি সেন্টারে এক পরামর্শ সভার অায়োজন করে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ইপসা। ২২ নভেম্বর সকাল ১১ টায় অনুষ্ঠিত উক্ত কর্মসভায় ইপসা ও প্রকল্পের বিভিন্ন কার্যক্রম ও কর্মসূচী তুলে ধরেন ইপসা ফেয়ারার লেবার মাইগ্রেশন প্রকল্পের প্রজেক্ট অফিসার মুহাম্মদ আবু তাহের।
পরামর্শ সভায় অংশগ্রহণকারীরা উম্মুক্ত আলোচনার মাধ্যমে শ্রম অভিবাসনের সাথে সংশ্লিষ্ঠ স্টেকহোল্ডারদের চিহ্নিত করেন এবং উক্ত স্টেকহোল্ডারদের মোবিলাইজেশনের জন্য বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করেন। বিদেশ ফেরত এবং ভিসা সংক্রান্ত জটিলতা ও অভিবাসন বিষয়ক অভিযোগের নিষ্পত্তির বিভিন্ন কার্যক্রমের বিভিন্ন বাস্তব উদহারন সবার সামনে তুলে ধরেন উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতি ও ইপসা জিএমসি কমিটির সন্মানিত জিএমসি সদস্য জনাব রেজাউল করিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুশীল সমাজ প্রতিনিধি জনাব সোলতান আহমদ ও ইউপি সদস্য জনাব জান্নাতুল ফেরদৌস। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সানসাইন ট্রাভেল এজেন্সির স্বত্বাধিকারী মুহাম্মদ অালাউদ্দিন বলেন করোনার ফলে অামরা অনেক সমস্যায় পড়েছি যেমন করোনার অাগে বিদেশে যাবার জন্য যারা টাকা দিয়েছে তারা বিদেশ যেতে না পেরে এখন আমাদের কাছে টাকা চায়। অথচ এ টাকা অামরা সংশ্লিষ্টদেরকে দিয়ে দিয়েছি। করোনার অাগে যাদের সাথে কথা বলেছি তাদের কথা রাখতে গিয়ে অামরা এখন নানারকম সমস্যায় পড়তেছি। টিকেটের দাম এখন দিগুণ। টিকেটের বাড়তি টাকা বিদেশ প্রত্যাশীরা দিতে চাচ্ছে না। অাগের কথা রাখতে গিয়ে অামরা বিপদে পড়তেছি। সৌদি অারবের ক্ষেত্রে নতুন সমস্যা দেখা দিয়েছে। এখন সেখান হতে যাবার জন্য নতুন করে অনুমতিপত্র আনতে হবে। তবেই প্রবাসীরা ফিরে যেতে পারবে। এটা একধরনের বিড়ম্বনা।
অনুষ্ঠানের শেষপ্রান্তে সবাই নিজ নিজ উদ্যোগে নিরাপদ অভিবাসনের সঠিক ধাপগুলো সমাজের সর্বত্র পৌছে দেবার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। ইপসা ফেয়ারার লেবার মাইগ্রেশন প্রকল্পের লক্ষ্য হলো শ্রম অভিবাসনের সাথে জড়িত ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানের স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহীতা বৃদ্ধি করা।

উল্লেখ্য ফেয়ারার লেবার মাইগ্রেশন প্রকল্পটির কারিগরী ও আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করছে প্রকাশ, ব্রিটিশ কাউন্সিল।