এবার নোবেল ও জাতীয় সংগীত নিয়ে যা বলেন প্রিন্স মাহমুদ

বিনোদন ডেস্কঃ প্রিন্স মাহমুদ, বাংলা ব্যান্ড সঙ্গীতে এক জীবন্ত কিংবদন্তির নাম। বাংলা ব্যান্ডকে যে কজন মানুষ সাধারণ শ্রোতাদের নিকট শ্রুতিমধুর করে তুলতে পেরেছিলেন তিনি হলেন প্রিন্স মাহমুদ। আর সাম্প্রতিক সময়ের বেশ আলোচিত নামও এটি। কারণ? কারণ আর কিছু নয়, ভারতের স্যাটেলাইট টেলিভিশন জি বাংলার রিয়েলিটি শো সারেগামার মাধ্যমে আলোচনায় আসেন বাংলাদেশি তরুণ মাইনুল আহসান নোবেল। একের পর এক গান দিয়ে দুই বাংলার শ্রোতা-জনতাদের মাত করে চলছিলেন এই তারকা। নোবেল, প্রিন্স মাহমুদের করা বেশ কটি গান করে প্রশংসা অর্জন করেন।
সম্প্রতি জাতীয় সঙ্গীত নিয়ে করা মন্তব্য নিয়ে বেশ আলোচনা সমালোচনার শিকার হন নোবেল। কী বলেছিলেন নোবেল? তিনি এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, রবীন্দ্র নাথের লেখা জাতীয় সঙ্গীত আমার সোনার বাংলা যতটা না দেশকে এক্সপ্লেইন করে তারচেয়ে কয়েক হাজার গুণে এক্সপ্লেইন করে প্রিন্স মাহমুদ স্যারের লেখা এই গানটা। যদিও এটি ৮ মাস আগের একটি সাক্ষাৎকার। কিন্তু হুট করে দুইয়েকদিন আগে এটি ভাইরাল হয়।
আর সাক্ষাৎকারের এই মন্তব্য নিয়ে দেশে ঝড় ওঠে- এমনকী কলকাতার জনপ্রিয়শিল্পীরাও নোবেলকে ছাড় দিয়ে কথা বলেননি। অন্যদিকে নোবেলের এই বক্তব্যকে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা শ্রেণি সমর্থন দিয়ে বসে। কিন্তু এই গানের স্রষ্টা অর্থাৎ গানের গীতিকার ও সুরকার প্রিন্স মাহমুদ বিষয়টি নিয়ে কী বলছেন তা নিয়েই অনেকেই উৎসুক ছিলেন। তিনিও কি তাই মনে করেন? এমনটা প্রশ্ন ছিল। অবশেষে মুখ খুললেন এই সঙ্গীতস্রষ্টা। তিনিও রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা জাতীয় সঙ্গীতের প্রতি পূর্ণ ভালোবাসা। রবিবার সকালে তিনি ফেসবুক হ্যান্ডেলে লিখলেন, জাতীয় সংগীত আমাদের অস্তিত্বের নাম।
শূন্য দশকের গোড়ার দিকে মুক্তি পাওয়া পিয়ানো অ্যালবামের বাংলাদেশ গানটি বেশ আলোচিত হয়। গানে কণ্ঠ দেন মাহফুজ আনাম জেমস।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.