এক বহিষ্কারাদেশে ২২ বানান ভুল

প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনে গিয়েছিলেন এক জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ডিপিও)। এ সময় তিনি শিশু ছাত্রছাত্রীদের ইংরেজি বই থেকে রিডিং পড়তে দেন। কিন্তু শিক্ষার্থীরা ঠিকমতো পড়তে পারেনি। শিক্ষার এই ‘বেহাল দশা’ দেখে এবং ঠিকমতো পাঠদান করতে না পারার ‘অপরাধে’ ওই বিষয়ের শিক্ষিকাকে সাময়িক বহিষ্কার করেন ডিপিও। ওই বহিষ্কারাদেশের চিঠি পাঠান সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে। পরে দেখা যায়- তার ওই এক চিঠিতেই ২২টি বানান ভুল!

একপর্যায়ে ভুলেভরা চিঠিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। সমালোচনার ঝড় ওঠে। এদিকে স্থানীয় শিক্ষক সমিতিও বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে ডিপিওর বিরুদ্ধে কর্মসূচি ঘোষণা করে। পরে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারও করে নেন। তবে ঘটনা এখানেই শেষ হবে বলে মনে হচ্ছে না। শিক্ষিকাকে শাস্তি দিতে গিয়ে ডিপিও নিজেই এখন ফাঁপড়ে। প্রশ্ন উঠেছে তার যোগ্যতা নিয়ে। মোটকথা তার নিজের চাকরি নিয়েই এখন টানাটানি।

!-- Composite Start -->
Loading...

এ ব্যাপারে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের খুলনার উপপরিচালক মেহেরুন্নেছা বলেন, ডিপিও আক্তারুজ্জামান শিক্ষিকাকে ভুলেভরা চিঠি দিয়েছেন। তবে একজন ডিপিওর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার এখতিয়ার আমার নেই। বিষয়টি সম্পর্কে ঊর্ধ্বতন মহলকে জানানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নেবে।

জানা গেছে, গত ৩০ জুলাই ঝিনাইদহের মহেশপুরের ভালাইপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পরিদর্শনে যান জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার (ডিপিও) আক্তারুজ্জামান। এ সময় তিনি চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের ইংরেজি বই থেকে রিডিং পড়তে দেন। শিক্ষার্থীরা ঠিকমতো পড়তে না পারায় ওই বিষয়ের শিক্ষিকা নার্গিস সুলতানাকে বহিষ্কার করেন ডিপিও। স্থানীয় শিক্ষক সমিতি এ বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহরের দাবিতে গতকাল রবিবার ডিপিওর বিরুদ্ধে কর্মসূচি ঘোষণা করে। বেলা ২টার মধ্যে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা না হলে বিকাল সাড়ে ৪টায় মহেশপুর উপজেলা চত্বরে মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করে।

এ ব্যাপারে ডিপিও আক্তারুজ্জামান বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ও শিক্ষক সমিতির নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে ওই শিক্ষিকার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যহার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কেন্দ্রীয় শিক্ষক সমিতির সিনিয়র সহসম্পাদক আবদুল হক এ প্রতিবেদককে জানান, দ্বিপক্ষীয় আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ কারণে কর্মসূচিও স্থগিত করা হয়েছে।

এ বিষয়ে শিক্ষিকা নার্গিস সুলতানা বলেন, ডিপিও সাহেব ভুল শিকার করে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

মতামত দিন

Post Author: bdnewstimes