ইভিএমে ভোট দেবেন যেভাবে

নিজস্ব প্রতিবেদক : আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দেশের ছয়টি সংসদীয় আসনের সবগুলো কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, এ নির্বাচনে ছয়টি আসনে আনুমানিক ৯০০টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হবে।

!-- Composite Start -->
Loading...

ইসির জনসংযোগ পরিচালক ও যুগ্ম সচিব এস এম আসাদুজ্জামান জানান, প্রতিটি কেন্দ্রে গড়ে পাঁচটি ভোটকক্ষ থাকে। ৪০০-৫০০ ভোটারের জন্য প্রতি ভোটকক্ষে থাকবে একটি করে ইভিএম। কোনো ধরনের ত্রুটি দেখা গেলে ‘স্ট্যান্ডবাই’ হিসেবে রাখা হবে তিনটি করে ইভিএম।

যন্ত্রে ভোটগ্রহণ নিয়ে বিভ্রান্তি দূর করতে দেশের বিভিন্ন স্থানে ইভিএম মেলারও আয়োজন করেছে নির্বাচন কমিশন।

এ যন্ত্রে আঙুলের ছাপ, ভোটার নম্বর, জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর বা স্মার্ট পরিচয়পত্র ব্যবহার করে ভোটার শনাক্ত করা হয়। নির্দিষ্ট কেন্দ্রের ভোটকক্ষে একজন পোলিং অফিসার ভোটার ভেরিফিকেশনের কাজটি করবেন।

ডেটাবেজে ভোটার বৈধ বা অবৈধ হিসেবে শনাক্ত হলে প্রজেক্টরের মাধ্যমে তা দেখতে পাবেন পোলিং এজেন্টরা।

ভোটার বৈধ হলে মেশিনে কুইক রেসপন্স কোড (কিউআর কোড) এবং কিছু তথ্যসম্বলিত একটি টোকেন প্রিন্ট হবে, যা ভোটারকে দেওয়া হবে।

ভোটার টোকেন নিয়ে সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তার কাছে গেলে ভোটিং মেশিনের কিউআর স্ক্যানারের মাধ্যমে তার টোকেন শনাক্ত করে গোপন কক্ষে থাকা ব্যালট ইউনিটে ব্যালট ইস্যু করা হবে।

ভোটার পছন্দের প্রার্থী ও প্রতীক দেখে বাম দিকের বোতামে চাপ দিয়ে সিলেক্ট করবেন। ওই ব্যালট ইউনিটে সবুজ রঙের কনফার্ম বোতামে চাপ দিলে তার ভোট দেওয়া হয়ে যাবে।

কখনো ভুল প্রতীক সিলেক্ট করা হলে, ব্যালট ইউনিটের লাল রঙের ক্যানসেল বোতাম চেপে পরে যেকোনো প্রার্থীকে আবার সিলেক্ট করা যাবে।

এভাবে দুই বার ক্যানসেল করা যাবে, তৃতীয়বার যেটি সিলেক্ট করা হবে সেটি বৈধ ভোট হিসেবে গৃহীত হবে।

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যে ছয় আসনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেওয়া হবে সেগুলোতে ‘অনুশীলনমূলক’ ভোট নেওয়ার ব্যবস্থা করছে ইসি।

বৃহস্পতিবার নির্ধারিত ওই ছয়টি সংসদীয় আসনে অনুশীলনমূলক ভোট হবে। সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ইভিএমের সব কেন্দ্রে একযোগে এ ভোট হবে।

মতামত দিন

Post Author: bdnewstimes