আদালতে নেওয়া হচ্ছে কলাবাগান ক্লাবের সভাপতিকে

কলাবাগান ক্লাবের সভাপতি শফিকুল আলম ফিরোজকে আদালতে তোলা হচ্ছে। আজ শনিবার দুপুর ১২টার দিকে তাকে নিয়ে আদালতের উদ্দেশে রওনা হয় পুলিশ।

এর আগে এদিন শফিকুল আলম ফিরোজের বিরুদ্ধে ধানমন্ডি থানায় অস্ত্র ও মাদক আইনে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) বাদী হয়ে দুটি মামলা করেছে।

ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ দৈনিক আমাদের সময়কে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘আজ সকালে র‌্যাব শফিকুল আলম ফিরোজকে ধানমন্ডি থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। বিকেল ৩টার দিকে তাকে সিএমএম আদালতে তোলা হবে।’

গতকাল শুক্রবার দুপুরে অভিযান শুরুর আগে ক্লাবের সভাপতি শফিকুল আলমকে ক্লাব থেকে র‍্যাব-২–এর কার্যালয়ে নেওয়া হয়। সেখানে কয়েক ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে তাকে নিয়েই ক্লাবে অভিযান চালানো হয়। এ সময় কলাবাগান ক্রীড়াচক্র ক্লাব থেকে ক্যাসিনোয় ব্যবহৃত ৫৬২ পিস চিপস (কার্ড), হলুদ রঙের ইয়াবা ও একটি পিস্তল এবং কয়েক রাউন্ড গুলি জব্দ করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এদিন বিকেলে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গাউসুল আজমের নেতৃত্বে চলা এ অভিযানে গ্রেপ্তার করা হয় ক্লাবে কর্মরত চার কর্মচারীকে। তারা হলেন- মফিজুল ইসলাম, হারুন, আনোয়ার ও লিটন।

পরে র‌্যাব-২ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাল জানান, কলাবাগান ক্রীড়াচক্র ক্লাবে অবৈধ কিছু জিনিসপত্র ছাড়াও ক্যাসিনো চলছে- এ সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার ওই ক্লাবে অভিযান চালানো হয়। এর আগে শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে শফিকুল আলমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব হেফাজতে নেওয়া হয়।

কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বায়রার সিনিয়র সহসভাপতি শফিকুল আলম ফিরোজ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁদপুর-৫ (শাহরাস্তি-হাজীগঞ্জ) আসনে নৌকার মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন।

মতামত দিন

Post Author: bdnewstimes