আইসিটি বিভাগের আইডিয়া প্রকল্প এবং ইউজিসি এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত

54


সোহাগ চন্দ্র দাস ::

শুধুমাত্র অনুদান প্রদান নয় বরং স্টার্টআপদের কল্যাণে তাদের প্রচারণা, দক্ষতা এবং জ্ঞান বৃদ্ধিতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের আওতাধীন “উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমি প্রতিষ্ঠাকরণ (iDEA) প্রকল্প” ২০১৬ সাল থেকে কাজ করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে দেশি ও বিদেশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়ে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে আইডিয়া প্রকল্প যা বাংলাদেশে একটি স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম গঠনে রাখছে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।

উদ্যোক্তা সংস্কৃতি বিকাশের উদ্দেশ্যে স্টার্টআপদের জন্য নিয়মিতভাবে প্রযুক্তি বিষয়ক ও যুগোপযোগী বিভিন্ন প্রশিক্ষণ, মেন্টরিং, ক্যাম্পেইন, অ্যাওয়ার্ডস প্রোগ্রাম, সেমিনার, কর্মশালা ও গবেষণাসহ বিভিন্ন ধরণের কর্মসূচির উদ্যোগ গ্রহণ করছে আইডিয়া প্রকল্প। এরই আলোকে, ২৪ নভেম্বর ২০২১ বুধবার, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) এর সাথে আইডিয়া প্রকল্প আগারগাঁও-এর আইসিটি টাওয়ারে অবস্থিত আইসিটি বিভাগের iDEA প্রকল্পের সভাকক্ষে একটি সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষরিত হয়।

 আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ এবং ইউজিসি চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. কাজী শহীদুল্লাহ এর উপস্থিতিতে এই সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন আইডিয়া প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ও যু্গ্মসচিব মো: আব্দুর রাকিব এবং ইউজিসি সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ড. ফেরদৌস জামান।

 এ সময়ে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) এর নির্বাহী পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব ড. মোঃ আব্দুল মান্নান, পিএএ, ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, ইউজিসি জনসংযোগ ও তথ্য অধিকার বিভাগের পরিচালক ড. এ কে এম শামসুল আরেফিন, iDEA প্রকল্পের সিনিয়র পরামর্শক আর এইচ এম আলাওল কবির, আইন বিষয়ক পরামর্শক আদনীন জেরিন, কমিউনিকেশন্স বিষয়ক পরামর্শক সোহাগ চন্দ্র দাস-সহ ইউজিসি এবং আইডিয়া প্রকল্পের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ।

 সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী, সারাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে উদ্যোক্তা ও স্টার্টআপদের উন্নয়নের লক্ষ্যে ইনোভেশন হাব পর্যায়ক্রমে তৈরি করবে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) এবং আইডিয়া প্রকল্প। উদ্যোক্তাদের কল্যাণে ইন্ডাস্ট্রি, একাডেমিয়া এবং আইডিয়া প্রকল্প যৌথভাবে কাজ করবে যেখানে প্রশিক্ষণ, গ্রুমিং, অনুদান প্রদান-সহ নানাভাবে উদীয়মান ও সম্ভাবনাময় স্টার্টআপ বা উদ্যোক্তাদের সহোযোগিতা করা হবে। পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট একাডেমিক, গবেষক, শিল্প ও বাণিজ্য ক্ষেত্রের অভিজ্ঞ ও দক্ষ ব্যক্তিবর্গকে এই কার্যক্রমে রিসোর্স পারসন হিসেবে সংযুক্ত করা হবে। এর ফলে, উদ্যোক্তাগণ প্রযুক্তিগত ও ব্যবসায়িক নতুন নতুন বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করতে পারবে যা তাদের উদ্ভাবন বা স্টার্টআপকে সফলভাবে এগিয়ে নিতে সক্ষম হবে।

 এছাড়া, ইউজিসি এর উদ্যোগে “মুজিব ১০০ আইডিয়া” কনটেস্টটি প্রতিবছর আয়োজিত হবে যেখান থেকে প্রাপ্ত শীর্ষ ১০০ উদ্যোগকে উক্ত ইনোভেশন হাবের মাধ্যমে মেন্টরিং ও গ্রুমিং প্রদান করা হবে। এর ফলে উক্ত স্টার্টআপরা তাদের জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে নিজেদের সীড ও গ্রোথ পর্যায়ে পৌঁছাতে সক্ষম হবে। একইসাথে, আইডিয়া প্রকল্প থেকে “মুজিব ১০০ আইডিয়া” কনটেস্টটির সেরা ১০ স্টার্টআপকে আইডিয়া প্রকল্পের সিলেকশন কমিটি কর্তৃক মূল্যায়নের ভিত্তিতে ১০ লক্ষ টাকা করে অনুদান প্রদান করা হবে।

এই কার্যক্রমের ফলে দেশে গঠিত হবে একটি কার্যকর স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম যা ভবিষ্যতে দেশের উন্নত ব্যবসায়িক পরিবেশ তৈরিতে যথেষ্ট ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ।

Print Friendly, PDF & Email



Source link