‘অসমাপ্ত’ আত্মজীবনীতে নিতম্বে প্লাস্টিক সার্জারির কথা জানালেন প্রিয়াঙ্কা

0
443

মুম্বাই, ০৯ ফেব্রুয়ারি – বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ক্যারিয়ারে অনেক ব্যবসাসফল চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন। ২০১৮ সালে এ অভিনেত্রী ঘোষণা দিয়েছিলেন আত্মজীবনী লিখছেন। নাম ‘আনফিনিশড’ বা অসমাপ্ত। ২০১৯ সালে বইটি বাজারে আসার কথা ছিল। কিন্তু লেখার কাজ গুছিয়ে উঠতে না পারায় তা সম্ভব হয়নি। সর্বশেষ গত বছরের আগস্টের মাঝামাঝি তিনি জানান, বইটি লেখার কাজ শেষ করেছেন।

অনেক প্রতীক্ষার পর মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) প্রকাশিত হচ্ছে প্রিয়াঙ্কার আত্মজীবনী ‘আনফিনিশড’। বইটি প্রকাশ করছে পেঙ্গুইন র‌্যান্ডম হাউস ইন্ডিয়া। একই সঙ্গে যুক্তরাজ্য এবং যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রকাশিত হবে বইটি। বইটিতে প্রিয়াঙ্কার জীবনের নানা ঘটনা স্থান পেয়েছে। এক পরিচালক প্রিয়াঙ্কাকে তার নিতম্বে প্লাস্টিক সার্জারি করাতে বলেছিলেন। সেই ঘটনাও বইটিতে তুলে ধরেছেন এই অভিনেত্রী। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এ খবর প্রকাশ করেছে।

২০০০ সালে মিস ওয়ার্ল্ড বিজয়ী হন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। এই প্রতিযোগিতার মঞ্চ থেকে দেশে ফেরার পর প্রথম একজন পরিচালক তার সঙ্গে দেখা করেন। তিনিই তাকে প্লাস্টিক সার্জারি করার পরামর্শ দিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা।

আরও পড়ুন : করোনায় মানুষের অসচেতনতা দেখে ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মালাইকা

সেদিনের ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বইটিতে প্রিয়াঙ্কা লিখেছেন, কয়েক মিনিট কথা বলার পর পরিচালক আমাকে দাঁড়াতে বলেন এবং ঘোরাফেরা করতে বলেন। আমি তাই করি। দীর্ঘ সময় তিনি আমাকে তীক্ষ্মভাবে দেখলেন এবং মূল্যায়ন করলেন। এরপর বললেন, ‘তুমি একটি কাজ পাবে। তবে তোমার স্তন বড় করতে হবে, চোয়াল ঠিক করতে হবে এবং নিতম্ব কিছুটা বড় করতে হবে। যদি তুমি অভিনেত্রী হতে চাও তবে শারীরিক এই গড়ন ঠিক করা দরকার। লস অ্যাঞ্জেলেসে আমার পরিচিত একজন ভালো ডাক্তার আছে, তুমি চাইলে সেখানে পাঠাতে পারি।’ এসব শোনার পর কিছুক্ষণ স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলাম। তারপর আমি মিটিং থেকে চলে আসি।

এশিয়ান স্টাইল ম্যাগাজিনে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা। এসময় তার কাছে জানতে চাওয়া হয় এসব বিষয় কেন বইয়ে অন্তর্ভূক্ত করলেন? জবাবে প্রিয়াঙ্কা বলেন, কারো কাছে জবাবদিহিতার জন্য কিছু লিখিনি। জীবনের একটা সময় আমি সেখানে ছিলাম, এসব কিছু আমার জীবনে ঘটেছিল এবং সেগুলো শুধু মনে রেখেছি। কারণ বিষয়গুলো আমার জীবনে প্রভাব ফেলেছিল।

অভিনয় ক্যারিয়ারে নানা তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলেও হাল ছাড়েননি প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ২০০২ সালে তামিল ভাষার ‘থামিজহান’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন তিনি। পরের বছরই ‘হিরো’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক ঘটে তার। একই বছর ‘আন্দাজ’ সিনেমায় অভিনয় করে ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড জিতে নেন তিনি। এরপর অসংখ্য সফল চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা। কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, পদ্মশ্রী পুরস্কারসহ অসংখ্য সম্মাননা।

এন এইচ, ০৯ ফেব্রুয়ারি

Source link