অপশক্তিকে তোয়াজ করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা রক্ষা হবে না : ন্যাপ মহাসচিব

0
82

কারো দাসত্ব বা গোলামি করে বাংলাদেশ স্বাধীন হয় নাই। লড়াই-সংগ্রামের পথ ধরে রক্তের স্রোতধারা বেয়েই আজকের বাংলাদেশ আর লাল-সবুজের পতাকা। দুর্নীতিবাজ আর কোন ধরনের অপশক্তিকে তোয়াজ করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও গণতন্ত্র রক্ষা করা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

তিনি বলেন, স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ ও গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে দুর্নীতি-দুর্বৃত্তায়নের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ভিত্তিতে সংগ্রাম আরো তীব্র করতে হবে। দুর্নীতিবাজ ও অপশক্তিকে সামাজিক ও রাষ্ট্রীয়ভাবে বর্জন করতে হবে, রাজনীতি থেকে বিদায় জানাতে হবে।

শুক্রবার (১ জানুয়ারি) নয়াপল্টনের যাদু মিয়া মিলনায়তনে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংহতি দিবস স্মরণে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সকল ধরনের অপশক্তি এবং তাদের ধারক ও বাহক ধর্মান্ধ উগ্র মৌলবাদী গোষ্ঠি, ধর্মবিদ্বেষী উগ্র মৌলবাদী গোষ্ঠি ও অপসংস্কৃতির পৃষ্ঠপোষক কর্পোরেট-বিদেশী বহুজাতিক শকুনদের বিরুদ্ধে নতুন প্রজন্মকে উজ্জিবিত করুক সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী সংহতি দিবস। শহীদ মতিউল ও শহীদ কাদেরের আত্মত্যাগ হোক আগামীদিনের অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক, দুর্নীতি-দুর্বৃত্তায়ন মুক্ত বাংলাদেশ গঠনের প্রেরণা।

ন্যাপ মহাসচিব ১৯৭৩ সালে সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী আন্দোলনে শহীদ মতিউল ও কাদেরের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, তাঁদের দুজনের আত্মদানের পর সরকার ভিয়েতনামের বিপ্লবী সরকারকে স্বীকৃতি দিতে বাধ্য হয়েছিল। মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিল। মুক্তিযুদ্ধের ধারায় বাংলাদেশকে অগ্রসর করার ক্ষেত্রে বর্তমানে সাম্রাজ্যবাদ বড় বাধা।

তিনি বলেন, ১৯৭২ সালের শেষদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিয়েতনামে হত্যাযজ্ঞ ও রাসায়নিক অস্ত্র দিয়ে জমি ক্ষেত জ্বালিয়ে দিলে খাদ্যাভাবে অনেক মানুষ মারা যায়। সারাবিশ্ব এই ঘটনায় হতবাক হয়ে যায় ও যুক্তরাষ্ট্রকে ধিক্কার জানায়। ১৯৭৩ সালের ১লা জানুয়ারি ভিয়েতনামের স্বাধীনতা স্বীকৃতির দাবীতে ছাত্র ইউনিয়ন ও ডাকসুর নেতৃত্বে মার্কিন তথ্যকেন্দ্র ঘেরাও কর্মসূচি মিছিলে পুলিশের অতর্কিত হামলায় স্বাধীন বাংলাদেশে প্রথম ছাত্র শহীদ হন ছাত্রনেতা মির্জা কাদের ও মতিউর ইসলাম এবং আহত হন শতাধিক নেতাকর্মী।

বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলু’র সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহন করেন এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ন্যাপ ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, যুগ্ম মহাসচিব এহসানুল হক জসীম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, সহ-সম্পাদক এডভোকেট আবদুস সাত্তার, মহানগর সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. নজরুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক মো. শামিম ভুইয়া, মহিলা সম্পাদক সাদিয়া ইসলাম ইমন প্রমুখ।