অনুমান নয়, ইভ্যালি নিয়ে সিদ্ধান্ত পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণের পর

66


সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রকৃত চিত্র উঠিয়ে আনাই হবে ইভ্যালি পরিচালনায় গঠিত অন্তর্বর্তীকালীন বোর্ডের প্রধান কাজ। কোনো ধরনের অনুমান নয়, বরং সব ধরনের নথিপত্র এবং তথ্য-উপাত্ত পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণ করে তবেই প্রতিষ্ঠানটি নিয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) রাজধানীর ইভ্যালি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত অন্তবর্তীকালীন বোর্ডের সভায় সদস্যরা এমন অভিমত জানিয়েছেন। হাইকোর্টের পক্ষ থেকে পাঁচ সদস্যের বোর্ড গঠন করে দেওয়ার পর এটিই ছিল তাদের প্রথম বৈঠক।

সভার পর বোর্ড সদস্যরা বলছেন, ইভ্যালির বিষয়ে কোনো ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে প্রথমেই প্রতিষ্ঠানটি অডিট করা হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকসহ প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ইভ্যালি সম্পর্কিত সব প্রতিবেদন সংগ্রহ করা হবে। গোয়েন্দা সংস্থাসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতিবেদনগুলো আমলে নেওয়া হবে। সবকিছু বিচার-বিশ্লেষণ করে ইভ্যালি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। প্রতিষ্ঠানটি বিলুপ্তই হবে কিংবা চলবে— এমন কোনো অনুমানের ওপর ভিত্তি করে বোর্ড কোনো সিদ্ধান্ত নেবে না।

অনুমান নয়, ইভ্যালি নিয়ে সিদ্ধান্ত পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণের পর

জানতে চাইলে ইভ্যালির অন্তবর্তীকালীন বোর্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পাওয়া অতিরিক্ত সচিব মাহবুব কবির মিলন সারাবাংলাকে বলেন, প্রথমেই আমাদের একটি অডিট রিপোর্ট দরকার। অডিট টিম দিয়ে সেই রিপোর্ট তৈরি করা হবে। অডিট রিপোর্টে যা আসবে, তার ওপর ভিত্তি করে ফিজিবিলিটি পরীক্ষা করা হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে যেসব রিপোর্ট রয়েছে, আমরা সেগুলো সংগ্রহ করব। গোয়ন্দা সংস্থার তথ্য ও রিপোর্টগুলো সংগ্রহ করা হবে। প্রতিষ্ঠানটি বিলুপ্ত হবে অথবা চলবে— এমন কোনো চিন্তা আমাদের নেই। প্রকৃতপক্ষে যে চিত্র উঠে আসবে, তার ওপর ভিত্তি করেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

জানতে চাইলে বোর্ড প্রধান বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক সারাবাংলাকে বলেন, ‘ইভ্যালি অফিসে আজ (মঙ্গলবার) আমরা প্রথম বৈঠক করেছি। অনেকেই অবশ্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কথা বলছেন। এটি ঠিক নয়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই। আবার অনেকেই বলছেন— আমরা রাসেলের (ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কারাবন্দি মো. রাসেল) সঙ্গে কথা বলব। রাসেলের সঙ্গে আলাপ আলোচনার প্রশ্নই ওঠে না।’

এর আগে, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির দুই কর্ণধার চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন ও সিইও মো. রাসেল কারাবন্দি থাকার প্রেক্ষাপটে গত ১৮ অক্টোবর প্রতিষ্ঠানটির জন্য পাঁচ সদস্যের বোর্ড গঠন করে দেন হাইকোর্ট। আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি এ এইচ এম সামসুদ্দিন চৌধুরী মানিককে বোর্ডের প্রধান করা হয়েছে। বোর্ডের বাকি সদস্যরা হলেন— সাবেক সচিব মোহাম্মদ রেজাউল আহসান, ওএসডি থাকা অতিরিক্ত সচিব মাহবুবুল করিম মিলন, চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট ফখরুদ্দিন আহম্মেদ ও আইনজীবী খান মোহাম্মদ শামীম আজিজ।

আরও পড়ুন-

ইভ্যালি পরিচালনায় ৫ সদস্যের কমিটি

করণীয় নির্ধারণে আদেশের কপির অপেক্ষায় ইভ্যালি পরিচালনা বোর্ড

সারাবাংলা/ইএইচটি/টিআর





Source link