সৌদি প্রবাসীদের দাবী, ‘অর্থ-নৈতিক যোদ্ধা’ পরিচয়-পত্র প্রদান করতে হবে

নিজস্ব প্রতিনিধি, সৌদি আরব : সৌদি আরবের জেদ্দায় ‘প্রবাসীদের সমস্যা-সম্ভাবনা ও রেমিটেন্স ব্যবস্থাপনা’ বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতি, জেদ্দা কর্তৃক আয়োজিত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন, সমিতির উপদেষ্টা ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন। প্রধান অতিথি ছিলেন সৌদি আরব সফররত প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মোজাফ্ফর আহমেদ।

বিশেষ অতিথিগণের মধ্যে ছিলেন সফররত ইমিগ্রেশন পরিচালক টিপু সুলতান, জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কাউন্সিলর (শ্রম) আমিনুল ইসলাম, কাউন্সিলর আলতাফ হোসেন, কনসাল মোহাম্মদ রেজাই রাব্বি, জেদ্দাস্থ ইংরেজি স্কুলের চেয়ারম্যান কাজী নেয়ামুল বশির, বাংলা স্কুলের ভাইস-চেয়ারম্যান খন্দকার আবুল কালাম আজাদ, সমিতির উপদেষ্টা কাজী শাহ আলম, নাসির উদ্দিন সরকার, কাজী আমিন আহমেদ, বীরমুক্তিযোদ্ধা মঈনুদ্দিন ভূইয়া প্রমূখ।

মতবিনিময় সভা সঞ্চালনা করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আবুল বাশার বুলবুল।

আলোচকগণ প্রবাস ফেরত বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারীদের জন্যে বিশেষ ভাতা বা পেনশন এবং স্বাস্থ্য বীমার দাবী জানান। তারা বলেন, প্রবাসে জীবন-যৌবন শেষ করে অনেকে রিক্ত হাতে দেশে ফেরেন। কোন কাজ করার শরীরিক সামর্থ বা মানসিক শক্তি থাকে না অনেকের। রোগে-শোকে দুঃখে পরিবারের বোঝা ও করুণার পাত্র হতে হয়। তাই প্রবাস ফেরত সকলের জন্যে বিশেষ ভাতা বা পেনশন এবং স্বাস্থ্য-বীমার ব্যবস্থা থাকা যৌক্তিক এবং জরুরি।

ব্যাঙ্ক-বীমাসহ পিপিপি’র আওতায় লাভজনক খাতে প্রবাসীদের রেমিটেন্স বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টির দাবী জানিয়ে পদ্মা সেতুসহ বৃহৎ প্রকল্পে প্রবাসীদের কষ্টার্জিত বৈদেশিক মূদ্রা বিনিয়োগের ব্যবস্থা করা হলে, সরকার এবং প্রবাসীরা লাভবান হবে বলে অভিমত জানান।

মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করেছে। তেমনি প্রবাসীদের দেহের ঘাম ও রক্ত পানি করে অর্জিত বৈদেশিক মুদ্রা দেশের অর্থনৈতিক মুক্তিতে অবদান রাখছে। তাই বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী প্রবাসীদেরকে ‘অর্থ-নৈতিক যোদ্ধা’পরিচয়-পত্র প্রদানের দাবী জানান আলোচকগণ।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় যুগ্মসচিব মোজাফ্ফর আহমেদ বলেন, বর্তমান সরকার এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রবাসীদের বিষয়ে খুবই সংবেদনশীল। আলোচকগণের দাবীর প্রতি নিজের সমর্থন জানিয়ে তিনি বলেন, এসব বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে কাজ হচ্ছে এবং হবে, প্রবাসীরা এর সুফল দেখতে পাবেন। অভিবাসন ব্যয় কমানোসহ দক্ষ শ্রমশক্তি রপ্তানি এবং নতুন শ্রমবাজার উম্মুক্ত হচ্ছে বলে তিনি আশাবাদ জানান। প্রবাসীদের নিজ দেশের শুভেচ্ছাদূত আখ্যায়িত করে তিনি প্রবাসে দেশের ভাবমুর্তি উজ্জ্বল করার জন্যে প্রবাসীদের সাধুবাদ জানান।

সভাপতির সমাপনি বক্তৃতায় ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন মতবিনিময় সভায় উপস্থিতির জন্যে যুগ্ম-সচিব মহোদয়সহ তাঁর সফরসঙ্গী সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি আরও বলেন, অর্থনীতিবিদ এবং মন্ত্রণালয় সমন্বয়ে একটি ‘রেমিটেন্স ইনভেষ্টমেন্ট কমিশন’ গঠন করে, রেমিটেন্স ব্যবস্থাপনায় যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে দেশের আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক উন্নতি/অগ্রগতি আনয়ন সম্ভব।

মূলতঃ প্রবাসীদের কষ্ঠার্জিত অর্থ স্বদেশে প্রেরণ সহজতর করা এবং সঠিকভাবে বিনিয়োগের ব্যবস্থা করা প্রবাসী, সরকার তথা দেশের জন্যে খুবই জরুরি ।

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register