সবচেয়ে ব্যয়বহুল ‘পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র’ প্রকল্প অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে ব্যয়বহুল ‘রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র’ প্রকল্প অনুমো্দন দিয়েছে সরকার।

 

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রকল্পটির অনুমোদন দেওয়া হয়।

 

এ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ ১৩ হাজার ৯২ কোটি ৯১ লাখ টাকা। এটি এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের মধ্যে সবচেয়ে ব্যয়বহুল প্রকল্প। ২০২৫ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এটি বাস্তবায়ন করবে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন।

 

অনুমোদনের জন্য একনেক সভায় উপস্থাপনকালে জানানো হয়, পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটি নির্মাণে সরকারের নিজস্ব অর্থায়ন থেকে ২২ হাজার ৫২ কোটি টাকা ব্যয় হবে। এ ছাড়া  মোট নির্মাণ ব্যয়ের মধ্যে প্রকল্প সাহায্য হিসেবে রাশিয়া দিচ্ছে ৯১ হাজার ৪০ কোটি টাকা।

 

প্রকল্পটি অনুমোদনের বিষয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ভিভিইআর-১২০০ (এইএস-২০০৬) রিঅ্যাক্টরের দুটি বিদ্যুৎ ইউনিটের (ইউনিট-১ ও ২) সমন্বয়ে ২ হাজার ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতার পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করা হবে। সেই সঙ্গে এটি পরিচালনার জন্য বিভিন্ন ধরনের ভৌত অবকাঠামো তৈরি, বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিচালনার জন্য পরমাণু প্রযুক্তি সংক্রান্ত বিষয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে যোগ্য ও দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তোলা এবং কার্বনমুক্ত ও বেইসলোড বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সহায়তা করা সম্ভব হবে।

 

প্রকল্পের আওতায় প্রধান কার্যক্রম হচ্ছে- পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র ১ ও ২ নম্বর ইউনিটের বিস্তারিত ডিজাইন তৈরি, প্রশিক্ষণ, সরঞ্জাম সংগ্রহ, এলটিএমই সংগ্রহ, দুটি ইউনিট নির্মাণ, পারমাণবিক জ্বালানি সংগ্রহ, কমিশনিং ও টেস্টিং ইত্যাদি। এ ছাড়া প্রকল্প ব্যবস্থাপনায় ৩৬৯ জন এবং পরমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের অন্যান্য কাজ পরিচালনার জন্য ২ হাজার ৫৩৫ জন জনবল নিয়োগ, প্রকৌশল সরঞ্জাম স্থাপন, বিভিন্ন ধরনের কম্পিউটার, এক্সেসরিজ ও সফটওয়্যার সংগ্রহ, ভূমি অধিগ্রহণ, পূর্ত নির্মাণ কাজ করা হবে।

 

 

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register