breaking news New

শোক দিবসে মেজবানের উদ্দেশ্যে টুঙ্গিপাড়ায় মহিউদ্দীন পুত্র নওফেল

রাজিব শর্মা, চট্টগ্রাম অফিসঃ জাতীয় শোক দিবসে জাতির জনকের জন্মস্থান গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় মেজবান আয়োজনের শুরু করেছিলেন চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের নেতা এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী; তার প্রয়ানে সেই ধারা চালু রেখেছেন ছেলে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

গতকাল বুধবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশে রওনা হন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। বহরের নেতৃত্বে রয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক চৌধুরী নওফেল।

প্রায় চারশ নেতাকর্মী নিয়ে গোপালগঞ্জের উদ্দেশে রওনা হওয়ার আগে জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ প্রাঙ্গণে সংক্ষিপ্ত পথসভা ও দোয়ার আয়োজন করা হয়।

নওফেল বলেন, “দুঃসময়ে বঙ্গবন্ধুর টুঙ্গিপাড়ায় আমার বাবা মেজবান আয়োজন করে মানুষের মুখে তবারুক তুলে দিয়েছিলেন। আমার বাবা নেই। সেই ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতা রক্ষা দায়িত্ব বলে মনে করি।”
২০১৭ সালের ডিসেম্বরে মহিউদ্দিনের মৃত্যুর পর তার পরিবারের সদস্যরাই এই মেজবান আয়োজনের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন।
নওফেল বলেন, “নতুন প্রজন্মকে আমরা এ অনুশীলনে সম্পৃক্ত করতে চাই যাতে তারা ইতিহাসের সাথে পরিচিত হতে পারে ও শিখতে পারে। এছাড়া অনেকেরই ইচ্ছা থাকে টুঙ্গিপাড়ায় যাবার। তারা সারা বছর অপেক্ষায় থাকেন। তরুণরাও মুখিয়ে থাকে এ যাত্রায় সামিল হতে।”
এবারের বহরে দুটি বাসসহ মোট ৪০টি গাড়ি আছে বলে জানান নগর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক।
তিনি বলেন, “রাতে আমরা ফরিদপুরে অবস্থান করবো। খুব ভোরে টুঙ্গিপাড়া চলে যাব।”
বৃহস্পতিবার সকালে নেতকর্মীরা জাতির জনকের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবে।
এরপর দুপুরে টুঙ্গিপাড়ায় টুঙ্গিপাড়ার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠ ও বালাডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে একযোগে মেজবানের খাবার পরিবেশন শুরু হবে। দুটি স্থানে প্রায় ৪০ হাজার মানুষের খাবারের আয়োজন থাকবে।
কলেজ মাঠের আয়োজনে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানি গরুর মাংস, সাদা ভাত, চনার ডলা দিয়ে লাউ ও নলার ঝোল পরিবেশিত হবে।
বালাডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠের আয়োজন সাজানো হয়েছে মুরগির মাংস, সাদা ভাত ও ডাল দিয়ে।
চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সহযোগিতায় এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ফাউন্ডেশন এবার মেজবানের আয়োজন করছে।
টুঙ্গিপাড়ার পথে বহরে মহিউদ্দিনের স্ত্রী হাসিনা মহিউদ্দিন, ছোট ছেলে বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীনও রয়েছেন।
মেজবান আয়োজনের জন্য আগেই টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছেছেন চট্টগ্রামের মোহাম্মদ হোসেন বাবুর্চির নেতৃত্বে ৪০ সদস্যের একটি দল।
বহরে আছেন নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ রশীদ, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনান, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আবু তাহের, নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু, যুগ্ম আহ্বায়ক ফরিদ মাহমুদ, দেলোয়ার হোসেন খোকা ও মাহবুবুল হক সুমন, নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু ও সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর।
এছাড়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল, চট্টগ্রাম কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল করিম ও সাধারণ সম্পাদক সুভাষ মল্লিক সবুজ এবং হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মায়মুন উদ্দিন মামুনের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরাও বহরে সামিল হয়েছেন।

মতামত দিন

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register