মাগুরায় নৌকায় ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

মাগুরা প্রতিনিধি :

মাগুরার ছেলে বিশ্বখ্যাত ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে এবং শ্রীলঙ্কায় শততম টেস্টে জয়ের জন্য ক্রিকেটারদের অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য শুরু করেন।

আওয়ামী লীগের ওপর আস্থা রাখতে সবার প্রতি আহ্বান জানান দলের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘আমি আপনাদের দোয়া চাই, ভালোবাসা চাই। আর ২০১৯ সালে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট চাই।’

মাগুরা মুক্তিযোদ্ধা আছাদুজ্জামান স্টেডিয়ামে আজ মঙ্গলবার বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘নৌকা ক্ষমতায় আসলে বাংলাদেশের উন্নয়ন হয়, মানুষপেট ভরে খেতে পারে। সত্তর সালে জনগণ আওয়ামী লীগকে জয়যুক্ত করেছিল, আর সেই জন্যই আজ আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি।’

আওয়ামী লীগ উন্নয়ন করতে ক্ষমতায় আসে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগই জাতির পিতার নেতৃত্বে স্বাধীনতা এনে দিয়েছে। দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছিল, তখনই বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়। আমি সব ব্যথা বুকে নিয়ে আপনাদের জন্য কাজ করে যাচ্ছি একটা কারণে- আমার বাবা এ দেশকে ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত গড়তে চেয়েছিলেন। যখনই আমরা উন্নয়ন করতে চাই, দেশকে এগিয়ে নিতে চাই, তখন একটি শ্রেণি বাধা দেয়।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে কাজ করছে সরকার। প্রয়োজনে জীবন দিয়েও এ বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ করে যাব। সেটাই আমার প্রতিজ্ঞা।’

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রশ্নে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রত্যেকটি মসজিদের ইমাম, ধর্মীয় নেতা, শিক্ষক, অভিভাবক, ওলামা মাশায়েখ ও সব শ্রেণি-পেশার নাগরিকদের কাছে আমার আহ্বান থাকবে- আপনারা নিজেরা নিজ নিজ এলাকায় লক্ষ্য রাখবেন, কারও ছেলেমেয়েই যেন ওই জঙ্গিবাদের পথে না যায়।’

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মাগুরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি তানজেল হোসেন খান। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ কুমার কুন্ডুর পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

মাগুরায় ১৫০ কোটি ৩১ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ১৯টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে ১৭৭ কোটি ১১ লাখ টাকা ব্যয়ের নয়টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। প্রতিটি প্রকল্পের নামে তৈরি করা ফলক রাখা হয়েছিল মঞ্চের পাশে। প্রধানমন্ত্রী একে একে সব ফলকের পর্দা সরিয়ে সেগুলোর উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

মাগুরা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, মাগুরা ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতাল, শ্রীপুর ও মহম্মদপুর উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, সদরের আন্দোলবাড়িয়া সড়কে ফটকী নদীর ওপর ১০০.১০ মিটার সেতুসহ ১৯টি প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী মাগুরা আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস ভবন, শালিখায় নালিয়া ঘাটে ফটকী নদীর ওপর ৯৬ মিটার সেতু নির্মাণ, শালিখার আটিরভিটা-বরইচারা বাজার সড়কে ফটকী নদীর ওপর ৬৬ মিটার সেতু নির্মাণসহ নয়টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

এর আগে দুপুরে দেড়টায় বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টার প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে জনসভাস্থলের অদূরে সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অবতরণ করে।

সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী সার্কিট হাউসে যান। সার্কিট হাউস মাঠে প্রধানমন্ত্রীকে পুলিশের একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার দেয়। এ সময় প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান জেলা প্রশাসনসহ সরকারের কয়েকজন মন্ত্রী, আমলা ও রাজনীতিকরা।

মতামত দিন

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register