মহেশপুর ভৈরবা বাজারের ‘সজীব প্রাইভেট হাসপাতাল অ্যান্ড ক্লিনিক’-এ ভুল চিকিৎসায় প্রসুতির মৃত্যু, এলাকাজুড়ে চলছে তোলপাড়

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ
একের পর এক হাতুড়ে ডাক্তারের ভুল আপারেশনে প্রসুতি মৃত্যু থামছে না। গত বৃহস্পতিবার রাতেও এক হাতুড়ে ডাক্তারের ভুল অপারেশনে মৌসুমি খাতুন (২২) নামে এক প্রসুতির করুণ মৃত্যুর অভিযোগ করা হচ্ছে। এবারের ঘটনাটি ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার ভৈরবা বাজারের ‘সজীব প্রাইভেট হাসপাতাল অ্যান্ড ক্লিনিক’-এ। এলাকাবাসী ও রোগীর স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সামন্তা গোপালপুর গ্রামের আল-আমিনের স্ত্রী মৌসুমি খাতুনকে সিজার করানোর জন্য ভৈরবা বাজারের সজীব প্রাইভেট হাসপাতাল অ্যান্ড ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। ক্লিনিকটির অদক্ষ নার্স হাতুড়ে কায়দায় নরমাল ডেলিভারি করানোর চেষ্টা করে। পরে ব্যর্থ হয়ে হাতুড়ে ডাক্তার সোহেল রানাকে সিজার অপারেশনের জন্য ডাকা হয়। তারা আরো জানান, রাত আটটার দিকে ডা. সোহেল রানা প্রসুতি মৌসুমি খাতুনের সিজার অপারেশন করেন। রাত নয়টার দিকে মৌসুমির অবস্থার অবনতি হলে তাকে যশোরে পাঠানো হয়। কিন্তু রাস্তায়ই মারা যান মৌসুমি। প্রসুতি মৃত্যুর ঘটনায় এলাকাজুড়ে চলছে তোলপাড়। সজীব প্রাইভেট হাসপাতাল অ্যন্ড ক্লিনিকের মালিক সামাউল ইসলাম বলেন, ‘যেভাবেই হোক আমার এখানে সিজার অপারেশন করার পর রোগীর অবস্থা খারাপ হয়ে যায়। পরে যশোরে নেওয়ার পথে রোগী মৌসুমি খাতুনের মৃত্যু হয়। এ মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে আমি ঝামেলায় আছি।’ মহেশপুর থানার কর্মকর্তা ইনর্চাজ (ওসি) রাশেদুল আলম বলেন, ‘আমি রোগী মৃত্যুর ঘটনাটি লোকমুখে শুনেছি। তবে এখনো থানায় কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেবো।’ মহেশপুরের ভৈরবা বাজারে গড়ে ওঠা ক্লিনিকে বছর দুয়েক আগে একের পর এক প্রসুতি মৃত্যুর ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছিল। অভিযোগ ওঠে, অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে অদক্ষ ডাক্তার দিয়ে অপারেশন করার কারণে প্রসুতির মৃত্যুু হয়েছে। পরে কর্তৃপক্ষ তদন্ত কমিটিও গঠন করেন। কিন্তু কারো বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

মতামত দিন

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register