ভালোবেসে বন্ধুকে বিয়ে, বছর না ঘুরতেই ভাঙছে অভিনেত্রীর সংসার

0
111

ভালোবেসে দীর্ঘদিনের বন্ধুকে বিয়ে করেছিলেন দক্ষিণ ভারতের বাঙালি অভিনেত্রী শ্বেতা বসু প্রসাদ। কিন্তু বিয়ের পর সম্পূর্ণ হয়নি এক বছরও। প্রথম বিবাহবার্ষিকীর আগেই বিচ্ছেদের খবর দিলেন এই অভিনেত্রী।

ভারতীয় গণমাধ্যম জি নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে রোহিত মিত্তলের সঙ্গে নিজেই বিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়েছেন শ্বেতা বসু।

এই অভিনেত্রী জানান, রোহিত এবং তিনি একসঙ্গে বসে আলোচনা করেই বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিয়ের পর রোহিতের সঙ্গে যে স্মৃতি রয়েছে, তা অক্ষুণ্ন থাকবে।

গত বছর ১৩ ডিসেম্বর রোহিত মিত্তলের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন শ্বেতা বসু। বেশ ধুমধাম করেই রোহিতের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। লাল রঙের বেনারসি পরে একেবারে বাঙালি সাজেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেন শ্বেতা।

অভিনেত্রীর বিয়েতে দক্ষিণী সিনেমা জগতের তারকারা হাজির হন। বিয়ের পর শ্বেতা এবং রোহিতের রিসেপশনের আসরও বসে বেশ জমকালোভাবেই।

তবে বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যে থেকেই রোহিতের সঙ্গে মতের অমিল শুরু হয় শ্বেতার। এরপরই তারা বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন।

তবে কী কারণে দীর্ঘদিনের বন্ধু তথা স্বামী রোহিত মিত্তলের কাছ থেকে বিচ্ছেদ চাইছেন শ্বেতা বসু, সে বিষয়ে স্পষ্টভাবে কিছু জানা যায়নি।

শ্বেতা বলিউডে পা রাখেন শিশুশিল্পী হিসেবে। ২০০২ সালে শাবানা আজমির সঙ্গে ‘মকড়ি’ ছবিতে দুর্দান্ত অভিনয়ের পরে সেরা শিশু শিল্পী হিসেবে জাতীয় পুরস্কারও জিতে নিয়েছিলেন। তারপর বেশ কয়েকটি ছবিতেও দেখা গিয়েছিল শ্বেতাকে। যার মধ্যে ‘ইকবাল’-এ অভিনয় করে নজর কেড়েছিলেন তিনি। এরপর সিনেমা ছেড়ে টিভিতে খুবই জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন এই অভিনেত্রী।

অভিনয় ক্যারিয়ার ভালোই চলছিল শ্বেতার।কিন্তু হঠাৎই তিনি জড়িয়ে পড়েন বিতর্কে। ২০১৪ সালে দেহব্যবসার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার হন অভিনেত্রী।

দুই মাস পুনর্বাসন কেন্দ্রে থাকার পরে ফের সমাজের মূল স্রোতে ফিরে আসেন। করেন বিয়েও। কিন্তু সেই বিয়ে সুখী করতে পারলো না শ্বেতাকে। আপাতত অভিনয়েই আবারও পূর্ণ মনোযোগ দিতে চান বলে জানান এই অভিনেত্রী।