‘বাংলাদেশকে মাথা নিচু করে রাখা যায় না, প্রমাণিত হয়েছে’

বাংলাদেশকে যে মাথা নিচু করে রাখা যায় না, তা প্রমাণিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেছেন, ‘পদ্মা সেতু নিয়ে বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। আমরা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু করছি। বাংলাদেশকে যে মাথা নিচু করে রাখা যায় না, সেটি প্রমাণিত হয়েছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যারা বাংলাদেশকে নতজানু করে রাখতে চায় তারা শিক্ষা পেয়েছে।’

বৃহস্পতিবার রাজধানীতে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে স্বাধীনতা পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘২০২১ সালে আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করব। ২০২১ সালের মধ্যে আমরা মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবো। আমরা বিজয়ী জাতি। মাথা উঁচু করে চলব।’

দেশে মাথাপিছু আয় ১৪৬৬ মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দারিদ্র্য বিমোচন ২০০৫ সালে ৪৭ শতাংশ ছিল। বর্তমানে ৭/৮ শতাংশ কমেছে। আরো কমানোর চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। আমরা স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান স্থাপন করেছি। দেশ যাতে এগিয়ে যায়, মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে সেজন্য সব পদক্ষেপ নিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের বাজেট বাড়ানো হয়েছে। এবার ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৩ লাখ ৪০ হাজার ৬০৫ কোটি টাকার বাজেট দেয়া হয়েছে। সকলের বেতন বাড়ানো হয়েছে প্রায় ২৩ ভাগের মতো। বিশ্বের কোনো দেশে এত বেতন বাড়ানো হয় না।’

মুক্তিযুদ্ধের কথা তুলে ধরতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৬৬ সালে ৬ দফা উত্থাপন করেন বঙ্গবন্ধু। বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ এই ৬ দফা। তার জন্য বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়। ৭০ এর নির্বাচনে সমগ্র পাকিস্তানে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে আওয়ামী লীগ। তারপরও ক্ষমতা হস্তান্তর করা হয়নি।’

জাতির পিতার ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের কথা স্মরণ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘৭ মার্চের ভাষণে আমাদের স্বাধীনতা ও অর্থনৈতিক মুক্তির কথা উল্লেখ করেন বঙ্গবন্ধু। এর প্রতিবাদে ২৫ মার্চ নিরস্ত্র বাঙালি জাতির ওপর অস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে পাকিস্তানি বাহিনী। রাজারবাগ পুলিশ লাইনস, পিলখানা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলা চালায়। ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে ওয়্যারলেসের মাধ্যমে স্বাধীনতার ঘোষণা দেন বঙ্গবন্ধু।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘১০ এপ্রিল ১৯৭১ সালে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৭ এপ্রিল বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে বাংলাদেশের প্রথম স্বাধীন গণপ্রজাতন্ত্রী সরকার শপথ গ্রহণ করে। সেখানে বঙ্গবন্ধুকে রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করা হয়। সেই সরকার যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করে। আমরা বিজয়ী হই। আমরা বিজয়ী জাতি।’

মতামত দিন

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register