breaking news New

জ্যোতিষমতে পরপুরুষ বা পরনারীতে আসক্তির পিছনে যে কারণগুলি কাজ করে থাকে

জ্যোতিষ মতে পরপুরুষ বা পরনারীতে আসক্ত হওয়ার পিছনে যে সুপ্ত কারণ থাকে তা পৃথিবীতে ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর জাতক/জাতিকার মধ্যে অনুপ্রবেশ করে তা কিন্তু নয়, এটা ঘটে থাকে গতজন্মের বা জন্মান্তরের কারণে। পূর্বের জন্মান্তরের কারণে জাতক/জাতিকা এমন পরিবার ও পরিবেশে জন্মে থাকে সেখান থেকে এই প্রবণতা বাড়তেও পারে আবার কমতেও পারে,এখানে জাতক/জাতিকার মধ্যে নিজস্ব পুরুষকার কাজ করে। সে কি বার বার পরপুরুষ বা পরনারীর সঙ্গে পড়বে না নিজেকে সংযত করে এক-নারী বা এক-পুরুষে আসক্ত থাকবে সেটা নির্ধারণ করে থাকে অল্প কিছুটা জন্মছক বা গত জন্মের প্রভাব, বাকিটা তার ভিতরের পুরুষকার।
আরও পড়ুন: দাম্পত্য কলহ কি ডিভোর্সের রূপ নিতে চলেছে? ডিভোর্স এড়াতে মেনে চলুন সহজ কিছু বাস্তু টিপস
পরপুরুষ বা পরনারীতে আসক্ত হওয়ার জন্য যে কারণগুলি দেখানো হয়ে থাকে তা এ রকম:
১) কিছু বুঝে উঠার আগেই অল্প বয়সে বিয়ে হওয়া
২) দেখেশুনে বিয়ের ক্ষেত্রে, বিচারের ভুল থাকার কারণে যে বিয়েগুলি হয়ে থাকে, যেমন, ভুল পুরুষ বা ভুল নারীকে বিয়ে
৩) পূর্বে যার সঙ্গে প্রেম ছিল তার সঙ্গে বিয়ে না হয়ে অন্যের সঙ্গে বিয়ে হওয়া
৪) বিবাহিত জীবনে একঘেয়েমি
৫) যার সঙ্গে বিয়ে হয়েছে তার সঙ্গে সে ভাবে কোনও ঘনিষ্ঠতা গড়ে না ওঠায়
৬) যৌনমিলনে অতৃপ্তি
৭) দু’জনের মানসিক গড়নের পার্থক্য
৮) দারিদ্রতার চাপে
৯) প্রতিশোধ বা প্রতিহিংসার কারণে
১০) কে কী বলল সে সবের তোয়াক্কা না করে, সামাজিক বা বাইরের লোকজনের মতামতকে অগ্রাহ্য করার প্রবণতা যাদের মধ্যে কাজ করে থাকে
১১) প্রবল কামপ্রবণ, সেই সঙ্গে বহুনারীতে বা বহুপুরুষের সঙ্গে ভোগের লিপ্সা
১২) কেরিয়ারে উন্নতির জন্য
১৩) জ্যোতিষমতে পারিবারিক ট্র্যাডিশন।
এ বার জন্মছক থেকে যে উল্লেখযোগ্য কারণে জাতক/জাতিকা পরপুরুষ বা পরনারীতে আসক্ত হয়ে থাকে তা দেখাবো—
চন্দ্রের/রবির কারণে:
১) যদি কারও জন্মছকে রবি ও চন্দ্র একঘরে থাকে, মানে অমাবস্যায় জন্ম যাদের, এই রবি ও চন্দ্র খুব খারাপ ভাবে কুপিত অন্য গ্রহের কারণে, তার সঙ্গে জন্মছকের চতুর্থ ভাব ভীষণ ভাবে দুর্বল ও অন্য অশুভ গ্রহ দ্বারা দূষিত, সেইসঙ্গে এই চতুর্থ ভাব কোনও শুভগ্রহের প্রভাব বঞ্চিত হয় তা হলে সেই জাতক/জাতিকা অনৈতিক ও অবৈধ সম্পর্কে জড়িত থাকবে। এমনকি পুরুষ হলে তার থেকে বয়স্ক কোনও বিবাহিত নারীর সঙ্গে জড়িত থাকবে।
২) যদি কারও চন্দ্র ও শুক্র এক রাশিতে অবস্থান করে বা চন্দ্র শুক্র দ্বারা দৃষ্টিপ্রাপ্ত হয়ে থাকে, হাতের শিরোরেখা দৈর্ঘ্যে বেশ লম্বা হয়ে চন্দ্রের ক্ষেত্রে অনেক দূর পর্যন্ত প্রসারিত এমন জাতক/জাতিকা সর্বক্ষণ কামচিন্তায় মশগুল থাকে, কোনও নৈতিক শৃঙ্খলাবোধ না থাকে, তারা যে কোনও ব্যাভিচারে খুব অল্প বয়স থেকে লিপ্ত হয়ে পড়ে।
৩) যাদের ষষ্ঠ ভাবে এই চন্দ্র ও শুক্র যুগ্ম ভাবে থাকে এবং অন্য অশুভ গ্রহ দ্বারা দূষিত হয়, তাদের অনেকে বিয়ের আগে ও পরে নানা যৌন সংসর্গে জড়িত থাকবেই। বিয়ের আগে এমন জন্মছকের পুরুষ বা নারীকে বিয়ের ব্যাপারে সাবধান হতে হবে।
শনি, রাহু ও মঙ্গলের কারণে:
৪) রাহু যদি সপ্তমে অবস্থান করে আর লগ্ন যদি সে ভাবে বলশালী না থাকে তবে জাতক/জাতিকা নানা ভাবে যৌন তৃপ্তির জন্য ছুটে বেড়াবে। এদের মধ্যে নৈতিক মূল্যবোধ সে ভাবে কাজ করে না। এরা ভয়ানক মিথ্যা কথা বলে।
৫) জন্মছকে কোথায় যদি চন্দ্র ও রাহু বা শুক্র ও রাহু সংযুক্ত থাকে, সেই জাতক/জাতিকাকে বিয়ের ক্ষেত্রে বিশ্বাস করলে ভীষণ ভাবে ঠকতে হবে। বাইরে থেকে এদের ভাবখানা ধোয়া তুলসীপাতার মতো।
৬) কোনও জন্মছকে সপ্তম ভাব, সপ্তম পতি, চন্দ্র ও শুক্র যদি কোনও ভাবে রাহু দ্বারা প্রভাবিত হয়ে থাকে, তবে সে ক্ষেত্রে স্বামী বা স্ত্রী অনেক ক্ষেত্রেই পরস্পরকে প্রতারিত করবে।

মতামত দিন

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register