চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় পিছপা হব না : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা কোনো অন্যায়ের কাছে মাথা নত করবো না। আমরা মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বিজয়ী জাতি। যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় পিছপা হব না।

রোববার সকালে চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় বাংলাদেশ নেভাল একাডেমির ফ্লোটিলায় মিডশিপম্যানদের কমিশন প্রদান ও রাষ্ট্রপতির কুচকাওয়াজে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে এই সব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

সদ্য কমিশনপ্রাপ্ত মিডশিপম্যানদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে তোমরা এই দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার মহান দায়িত্বে আত্মনিয়োগ করবে। একটি সুশৃঙ্খল বাহিনীর সদস্য হিসেবে সর্বদা ঊর্ধ্বতনদের প্রতি আনুগত্য ও অধঃস্তনদের সহমর্মিতা প্রদর্শন করবে। চেইন অব কমান্ড মেনে চলার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে বিশ্ব দরবারে আরো গৌরবোজ্জ্বল আসনে অধিষ্ঠিত করতে সক্ষম হবে।

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের ইউনেস্কোর স্বীকৃতির প্রসঙ্গ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৭ মার্চের ভাষণে জাতির অস্তিত্বের ইতিহাস প্রতিফলিত হয়েছে। আমার মা বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ভাষণ দিতে বাড়ি থেকে বের হওয়ার প্রাক্কালে বাবাকে পরামর্শ দিয়ে বলেছিলেন, কারও দ্বারা প্রভাবিত হয়ে নয়, তার বিবেক যা বলে- সেই কথাগুলোই ভাষণে বলে আসতে। আমার মা বুঝতেন জাতির পিতাই বাঙালির আশা-আকাঙ্ক্ষা, দুঃখ-বঞ্চনার কথা সবচেয়ে ভালো জানেন।

তিনি বলেন, বাঙালি জাতির প্রতি তার মতো গভীর আন্তরিকতা আর কারো নেই। ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ শোষণ-শাসনে জর্জরিত জাতির বেদনার উপাখ্যান। ইউনেস্কোর এই স্বীকৃতি জাতির পিতার আহ্বানে সংঘটিত মুক্তিযুদ্ধের অবিনশ্বর ত্যাগ ও সংগ্রামের ইতিহাসের আলোকে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে আত্মবিশ্বাসী এবং দৃঢ়চেতা করবে।

সদ্য কমিশনপ্রাপ্ত নৌবাহিনীর মিডশিপম্যানেদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে দেশ সেবায় আত্মনিয়োগ করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

কুচকাওয়াজে মিডশিপম্যান ২০১৫ ব্যাচের সোহানুর রহমান চৌকষ সদস্য হিসেবে ‘সোর্ড অব অনার’ লাভ করেন। এ ছাড়া মিডশিপম্যান সীমান্ত নন্দী আকাশ ‘নৌ প্রধান স্বর্ণ পদক’ লাভ করেন।  ডাইরেক্ট এন্ট্রি অফিসার ২০১৭ বি ব্যাচের সাব লেফটেন্যান্ট এ জেড এম নাসিমুল ইসলাম বীর শ্রেষ্ঠ শহীদ রুহুল আমিন স্বর্ণ পদক অর্জন করেন।

অনুষ্ঠানে নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ ও চট্টগ্রাম নৌ অঞ্চলের কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল এম আবু আশরাফসহ ঊর্ধ্বতন সামারিক কর্মকর্তা, মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য, কুটনীতিক, ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
 

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

%d bloggers like this: