কুড়িগ্রামে কনকনে ঠান্ডায় মানুষের দুর্ভোগ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

কুড়িগ্রামে কনকনে ঠান্ডায় সাধারণ মানুষ দুর্ভোগে পড়েছে। বিশেষ করে চর ও নদী তীরবর্তী এলাকায় মানুষ শীতে কষ্ট পাচ্ছে।

বেলা দীর্ঘ হলেও রোদের দেখা মিলছে না। এ অবস্থায় গরম কাপড়ের অভাবে নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষ কাজে যেতে পারছে না। সবচেয়ে কষ্টে পাচ্ছে বৃদ্ধ ও শিশুরা। খড়-কুটো জ্বালিয়ে শীত থেকে বাঁচার চেষ্টা করছে তারা।

রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কুয়াশায় ঢেকে যাচ্ছে গোটা জনপদ। সঙ্গে বাড়ছে ঠান্ডার তীব্রতা। দিনে লাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলাচল করছে।

কুড়িগ্রাম শহরের রিকশা চালক আফজাল হোসেন বলেন, গত কয়েক দিন খুব শীত পড়ছে। দুপুর পর্যন্ত ঘর থেকে বের হতে পারেন না। গরম কাপড় নেই। দুপুরে রিকশা নিয়ে বের হন। রোজগার একেবারে কম।

সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের ব্রহ্মপুত্র পাড়ের বৃদ্ধ আব্দুল জলিল বলেন, তারা নদী পাড়ের মানুষ। কয়েক দিন থেকে শীতের সঙ্গে ঠান্ডা বাতাস। গরম কাপড় নেই।

কুড়িগ্রাম আবহাওয়া অফিসের উচ্চ পর্যবেক্ষক মো. জাকির হোসেন বলেন, গত তিনদিন ধরে এ অঞ্চলের তাপমাত্রা ১০ থেকে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠা-নামা করছে।

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register