breaking news New

কক্সবাজার সংখ্যালঘু হিন্দু জমি দখল করে ধানরোপন সন্ত্রাসীদের

বিশেষ প্রতিবেদকঃ কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের খরুলিয়া হিন্দু পাড়া গ্রামে সংখ্যালঘু হিন্দু ধর্মাবলম্বী মৃত রাখাল চন্দ্র শর্মা ও তার ছেলে ক্ষুদিরাম শর্মা (বাহদুর), শংকর শর্মা, সুজন শর্মাদের ভোগদখলীয় ৫০শতক ফসলি জমি জবর দখল করে ধান রোপনের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

ভুক্তভোগীরা জানিয়েছে, পাতলী গ্রামের মৃত ছৈয়দ আহমদের ছেলে ছৈয়দ আলমের নেতৃত্বে একদল দখলবাজ সংখ্যালঘুদের মালিকানাধীন জমিতে ধান রোপন করছে। দখলবাজ সিন্ডিকেটে রয়েছে মনজুর আলম, বাবুল, জানে আলম, শফিকুল আলম, রাশেদ আলম।
তাদের অন্যতম সহযোগী একই এলাকার মৃত বুয়াইয়ার ছেলে মনি আলম।

জানা গেছে, সদর উপজেলার পিএমখালী মৌজার জে, এল, নং -১৮, শধ্য,বি এস- ৪৬৩৬নং খতিয়ানভুক্ত ১৬২৭৭, ২০৪০০, ১৬২৪৭, ১৬২৫১নং দাগের ৫০ শতক জমি ভূক্তভোগী ক্ষুদিরাম শর্মারা খরিদ সুত্রে নিজ নামীয় রেকর্ডভুক্ত জমি হিসেবে প্রায় ৮ বছর ধরে ভোগদখল করে আসছিলো।

এমতাবস্থায়, তারা সংখ্যালঘু হিন্দু ধর্মাবলম্বী ও তাদের বাড়ির পাশে জমি হওয়ার কারণে গত ১ বছর আগে থেকে ওই সম্পত্তির প্রতি লোলুপ দৃষ্টি পড়ে প্রতিবেশী ভুমিদস্যু ছৈয়দ আলম ও সদর থানার দালাল বাবুল গংদের।
শুধু তাই নয়, ১বছর ধরে দখলের পাঁয়তারা করে আসছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। ভুমিদস্যুরা গত কয়েকদিন পুর্বে ভাড়াটে লোকজন নিয়ে উক্ত জমি জবর দখল করে বোরো ধান রোপন করে।

এসব ভূমিদস্যুদেরকে দখলে বাধা প্রদান করার কারণে ভুক্তভোগী সংখ্যালঘু পরিবারের উপর আসে হত্যার হুমকিও। দখলবাজদের অব্যাহত হুমকিতে ভীত সন্তস্ত হয়ে পড়েছে জমির মালিক ক্ষুদিরাম। ভূমিদস্যু চক্রটির হুমকি-ধামকিতে ভুক্তভোগীরা ভয়ে স্থবির হয়ে পড়েছে। নীরব কান্নায় বোবা হয়ে গেছে সংখ্যালঘু পক্ষের পুরো পরিবার।

ভুক্তভোগী ক্ষুদিরাম শর্মা জানান, প্রভাবশালীদের জবর-দখল অব্যহত রাখলে স্থানীয় বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছিনা। এই সংঘবদ্ধ চক্রের একজন মীমাংসার কথা বলে আমার কাছে মুঠোফোনে টাকা দাবী করছেন বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী ক্ষুদিরাম ও তার পরিবার।

এবিষয়ে জানতে চাইলে স্থানীয় এক ইউপি সদস্য ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এবিষয়ে একাধিকবার বৈঠকের চেষ্টা করেছি। দিনক্ষণ ঠিক করে পরে তারা আসেনা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় আরেক প্রবীণ সমাজপতি বলেন, তারা সবাই সদর থানার দালাল। জমির মালিকরা সংখ্যালঘু হওয়ায় পেশীশক্তির জোর খাটিয়ে জমি দখলে নিয়েছে।
এ ব্যাপারে অসহায় ক্ষুদিরাম শর্মা ও স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

মতামত দিন

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register