breaking news New

ওজন নিয়ে চিন্তিত, বেড়েই চলছে, আর না! দিক নির্দেশনাগুলো সাহায্য করতে পারে!

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ওজন বাড়ছে? চর্বি জমে পেটে পড়ছে ভাজ? সাথে কপালেও ভাজ পরছে? না কপালের ভাজটা হয়তো চর্বি বা মেদের জন্য নয় সেটা হয়তো দুশ্চিন্তার! এমন দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি দিতে সহায়ক হতে পারে খাবার। শুনতে অবাক লাগলেও অনেক খাবার রয়েছে যেগুলো মেদ কমাতে সহায়ক। এদের প্রত্যক্ষ উপকারের পাশাপাশি রয়েছে পরোক্ষ গুনাবলি। এমনি কিছু খাবার নিয়ে আমাদের আজকের আয়োজন।

শশাঃ
সিংহভাগ পানিতে ভরপুর শশা গরমের আরাম! গলা শুকিয়ে গেলে ছিল্লা কাইটা লবন লাগান বা না লাগান শশা খেতে কিন্তু বেশ তৃপ্তিকর। আপনার শরিরে মেদ জমা প্রতিহত করতে শশা কার্যকরি ভূমিকা রাখতে পারে। শশাতে ক্যালরি খুব কম থাকে। ফলে পেট ভরে খেলেও শরিরে তেমন কোন প্রভাব ফেলে না।

পেপেঃ
শশার মত পেপেতেও ক্যালরি অনেক কম থাকে। প্রতি ১০০ গ্রামে প্রায় ৪৩ ক্যালরি পাওয়া যায়। এটি বিভিন্ন পুষ্টিগুণ যেমন ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম ইত্যাদিতে ভরপুর। এটি ওজন কমানোর পাশাপাশি আপনার দেখের হজম শক্তি বাড়ায়।

তরমুজঃ
তরমুজের সম্পর্কে একটা মজার তথ্য হল তরমুজের ৯০% ই হল পানি! তরমুজেও ক্যালরি অনেক কম। এটি মূলত ভিটামিন ও মিনারেলে ঠাসা। এতে কোন চর্বি বা কোলেস্টরল নাই। সব থেকে বড় কথাও এটিও ওজন কমাতে সহায়ক।

টমেটোঃ
টমেটো কম ক্যালোরি ও উচ্চ ফাইবারে ভরপুর। ফাইবার ওজন কমাতে খুব সহায়ক। টমেটো খেলে শরিরের বিপাক্ক্রিয়া বৃদ্ধি পায়। ফলে বাড়তি চাহিদা পুরনের জন্য খরচ হয় শরিরের জমে থাকা মেদ। এছাড়াও টমেটো শরীরের পটাশিয়াম ও ভিটামিন সি এর চাহিদা পূরন করে।

পালং শাকঃ
কম ক্যালরি যুক্ত খাবারের মধ্যে পালং শাক অন্যতম। নিয়মিত সবজি তালিকায় রাখতে পারেন এই শাক। এক কাপ পালং শাকে মাত্র সাত ক্যালরি থাকে। তাই নির্দিধায় খেয়ে নিন।

লেটুস পাতাঃ
সালাদ হিসাবে লেটুস পাতার সুনাম বিশ্বজুড়ে। বিশেষ করে যারা ওজন কমাতে চায় তাদের খাদ্যতালিকায় প্রায়শই দেখা মেলে লেটুসপাতার। কারনও আছে বটে! মূল কারনটা বরাবরের মত একই। ক্যালরি অনেক কম এতে। এছাড়া এতে রয়েছে ভিটামিন কে।

ডিমঃ
সকালের নাস্তায় একটি বা দুটি সেদ্ধ ডিম হলে কেমন হয়? সাথে কম ক্যালরির কোন সালাদ বা ফল? ডিমকে অনেকেই ভয় করেন। মনে করেন যে ডিম খেলে মোটা হয়ে যাবে। ডিম খাওয়ার সব থেকে ভাল দিক হল অল্প খেলেও একটা পরিতৃপ্তি আসে ফলে আপনার ক্ষুধা কমাবে! তাছাড়া এতে রয়েছে প্রোটিন, স্বাস্থ্যকর ফ্যাট আর ক্যালরির পরিমানটা অনেক কম। ফলে এটিও মেদ কমাতে অনেক সহায়ক।

পরিশেষে শুধুমাত্র খাবার খেয়ে ওজন কমানো অনেক কঠিন। খাবার আপনাকে সহায়তা করতে পারে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে। আপনি বাড়তি ক্যালরি যুক্ত খাবার না খেয়ে যদি কম ক্যালরির খাবার কান তবে আপনার পেটও ভরলো আবার শরিরে বাড়তি ক্যালরিও যুক্ত হলনা। ফলে শরির তার জমানো ক্যালোরি বা ফ্যাট খরচ করবে। যার ফলে কমবে আপনার মেদ। এর পাশাপাশি ব্যায়াম করলে দ্রুত ভাল ফল পাওয়া যাবে।

মতামত দিন

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register