এক স্বপ্নে ২ টাকার থানকুনি পাতা ৬০ টাকা

0
125

একদিন আগেও থানকুনি পাতা ২ টাকা আঁটি বিক্রি করতাম। দু-একজন ছাড়া কেউই কিনত না। আর এখন ৪০-৬০ টাকা দরেও ক্রেতার অভাব নেই। গতকাল কারওয়ানবাজারের ব্যবসায়ী লাবু মিয়া এ কথা বলেন। বিশ্বের বিজ্ঞানীরা করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কারে হিমশিম খেলেও দেশে গুজব রটেছে ‘গভীর রাতে থানকুনি পাতা খেলেই মিলবে করোনা ভাইরাস থেকে পরিত্রাণ।’ এতেই হঠাৎ চাহিদার পাশাপাশি মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে থানকুনি পাতার।

গতকাল দিবাগত রাতে এমনই এক গুজবে ঘুম নষ্ট করেছেন দক্ষিণ অঞ্চলের অধিকাংশ মানুষ। সঠিক তথ্য যাচাই-বাছাই না করে সারারাত তারা থানকুনি পাতা খুঁজেছেন আর খেয়েছেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা স্বজনদেরও গভীর রাতে ফোন করে ঘুম ভাঙিয়ে খেতে বলেছেন। আর এরই সুযোগে গতকাল রাজধানীতে থানকুনি পাতার দাম ১০ থেকে ১২ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

এ গুজবের সৃষ্টি কোথা থেকে তা স্পষ্ট জানা না গেলেও মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকেই বরগুনায় থানকুনি পাতা সম্পর্কে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল। রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এ গুজব প্রকট আকার ধারণ করে। একসময় মসজিদের মাইকে মাইকে ঘোষণা দেওয়া হয় মধ্যরাতে থানকুনি পাতা খাওয়ার জন্য। দক্ষিণবঙ্গে এই গুজবের উৎপত্তি হলেও সারাদেশে এর বিস্তৃতি দ্রুতই ঘটে।

গতকাল ভোররাতেই রাজধানীর আশপাশে লোকজন যাত্রাবাড়ী, কারওয়ানবাজারের পাইকারি বাজারে গিয়ে ব্যাপকহারে থানকুনি পাতা কিনতে থাকেন। সকালের মধ্যেই সব বিক্রি হয়ে যায়। পরবর্তীতে সাভার, গাজীপুরের কাপাসিয়াসহ বিভিন্ন স্থান থেকে জরুরি ভিত্তিতে আবারও থানকুনি পাতা আনা হয়। ফলে কিছু বাড়তি খরচ হয়েছে বলেও দাবি করেছেন ব্যবসায়ীরা।