breaking news New

উত্তর ও দক্ষিণ চট্টগ্রামের যাত্রীদের সীমাহীন দুর্ভোগ, কাজ শেষ হতে আরো ১ বছর

রাজিব শর্মা, চট্টগ্রামঃ ওয়াসার পাইপ লাইনের খোঁড়াখুঁড়িতে বহদ্দারহাট মোড় থেকে কাপ্তাই রাস্তার মাথা পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার আরকান সড়কের দুর্ভোগ আড়াই বছরেও শেষ হয়নি। ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এ সড়ক মেরামতের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ পেলেও কাজ শেষ হতে আরো এক বছর সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী। তবে আসন্ন বর্ষায় পুরো এলাকায় দুর্ভোগ আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করবে বলে আশঙ্কা এলাকাবাসীর।

এদিকে খোঁড়াখুঁড়ির ফলে গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কের এক পাশে বছরের পর বছর ধরে গর্ত আর কাদামাটি থাকায় ওই এলাকা থেকে বেসরকারি অফিস, বীমা ও শো রুমসহ নানা গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান সরিয়ে নিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। এছাড়া ছেলে মেয়েদের স্কুল-কলেজে যাতায়াতে দুর্ভোগের কারণে ওই এলাকা থেকে চলে গেছেন শত শত ভাড়াটিয়া। এ ব্যাপারে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জসীম উদ্দিন জানান, ওয়াসার প্রকল্প কাজের কারণে আরকান সড়কের (বহদ্দারহাট মোড় থেকে কাপ্তাই রাস্তার মাথা পর্যন্ত) ৪ কিলোমিটার এলাকার এক পাশে দীর্ঘদিন কাজ করা যায়নি। ওই এলাকায় ওয়াসা কিছুদিন পরপর কাটাকুটি করে। তারা একদিনের অনুমতি নিয়ে ৩ দিন এবং ১ মাসের অনুমতি নিয়ে ৩ মাস বসে থাকে। তিনি বলেন, আরকান সড়কের বহদ্দারহাট মোড় থেকে কাপ্তাই রাস্তার মাথা পর্যন্ত ডান পাশের ৪ কিলোমিটার অংশে নতুন ভাবে কাজের জন্য ৭২ কোটি টাকা ব্যয় হবে। সড়কের অর্থ বরাদ্দ পাওয়া গেছে। আমাদের ১২৩০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প একনেকে পাস হয়েছে। সেখানে আরাকান সড়কও আছে। শীঘ্রই দরপত্র আহ্বান করা হবে। তবে কাজ শেষ হতে এক বছর সময় লাগবে।

এদিকে চট্টগ্রাম ওয়াসার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম জানান, আমরা আরকান সড়কে মদুনাঘাট পানি শোধনাগার প্রকল্পের পাইপ লাইনের ২ বছর কাজ করেছি। দুই বর্ষায় আমরা কাজ করতে পারিনি। অল্প বৃষ্টিতেই এ সড়কে পানি উঠে যায়। যার ফলে নির্দিষ্ট সময়ের চেয়ে বেশি সময় লেগেছে। এখানে আমরা প্রথমে ৪৮ মিটার ডায়া একটি পাইপ লাইন বাসিয়েছি। এরপর ৪৫০ এমএ ডায়ার একটি পাইপ বসিয়েছি। আমরা কাজ শেষ করার পর গ্যাসের পাইপ লাইনের কাজ হয়েছে। আমাদের কাজ শেষ হওয়ার পর আমরা ৮ মাস আগে সিটি কর্পোরেশনকে অফিসিয়ালি চিঠি দিয়ে সড়কটি বুঝিয়ে দিয়েছি এবং তাদের ডিমান্ড অনুযায়ী ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণও দিয়েছি। উল্লেখ্য, এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার স্থানীয় বাসিন্দা ও দক্ষিণ চট্টগ্রামের বোয়ালখালী-পটিয়া এবং উত্তর চট্টগ্রামের হাটহাজারী-রাউজান-রাঙ্গুনিয়া-কাপ্তাইর যাত্রীরা যাতায়াত করে। কিন্তু রাস্তার এক পাশ বন্ধ থাকায় গত আড়াই বছর ধরে এ সড়কে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে যাত্রী-পথচারীদের। তবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ইতোমধ্যে সড়কের এই অংশটি নতুন ভাবে মেরামতের উদ্যোগ নিয়েছে। এই মেরামত কাজ শেষ হতে সময় লাগবে আরো এক বছরের মতো। সামনে আসছে বর্ষা মৌসুম। এই বর্ষায় আবারো স্থানীয়দের পাশাপাশি উত্তর ও দক্ষিণ চট্টগ্রামের যাত্রীদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হবে।

মতামত দিন

0 Comments

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password

Register