ইসলাম বিরোধী সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর এখনই সময়

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: আজ পবিত্র জুমাতুল বিদায় কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরের সভাপতি গাছতলা দরবার শরীফের পীরে তরীকত আল্লামা খাজা আরিফুর রহমান তাহেরী বলেন, ইসলাম বিরোধী সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর এখনই সময়!
তিনি আজ তাঁর জুমার খুতবাতে বলেন, আল কোরআন নাজিলের মাস,রহমত,মাগফিরাত,নাজাতের মাস পবিত্র মাহে রমাদান আজ মাস বিদায়ের পথে। আমরা যে যেভাবে পেরেছি আল্লাহ তা’আলার ইবাদাত বন্দেগীতে নিজেদের নিয়োজিত রেখেছি,সিয়াম পালন করছে,তারাবীহ নামাজ আদায় করেছি,সেহরি-ইফতার করেছি,সাদকা দান করেছি। ইনশা-আল্লাহ্‌ আবারও একটি বছর ঘুরে ফিরে আসবে পবিত্র মাহে রমাদান।
সারা বিশ্বে ইসলামের বিরুদ্ধে এখন নানা ষড়যন্ত্র চলছে। জঙ্গিবাদের কারণে সত্যিকারের ইসলামের দাওয়াত ও তার সৌন্দর্য থেকে সবাই দূরে চলে যাচ্ছে। জঙ্গিদের উত্তরসূরিরাই আমাদের মাঝে সর্বদা ফিতনায় লিপ্ত। কখনো ইসলামের সঠিক আকিদা নিয়ে,আবার কখনো আমলে নিয়ে এবং তারাই ২০রাকাত তারাবীহ নামাজ কে ৮রাকাত বলে বলে সবার মাঝে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করেছিল। আল্লাহ্‌র অশেষ মেহেরবানিতে তাদের এই ফিতনা থেকে ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা সচেতন। ঠিক তেমনিভাবে ইসলামের বিরুদ্ধে আজ যারা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত, তাদেরকেও বাংলার মুসলিম জনতা রুখে দিবে। ইসলাম বিরোধীরা কখনও রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিলের জন্য পায়তারা করেছিল আবার কখনও জাতীয় শিক্ষানীতিতে ইসলাম কে মুছে ফেলার চক্রান্ত করেছিল। শুধু তাই নয়,তারা এখন আল্লাহ্‌র ঘর মসজিদের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমেছে,জনসম্মুখে অস্ত্র নিয়ে সাধারণ মুসুল্লিদের কে মসজিদ থেকে বের করার দৃষ্টান্ত দেখাচ্ছে! গেণ্ডারিয়ার কাপড়িয়ানগর মসজিদের জায়গা লুট করার জন্য তথাকথিত হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কিছু দেশদ্রোহী লোক এই অপচেষ্টায় লিপ্ত। সারা বাংলার কোন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টানরা এই দেশদ্রোহী সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত নয়,  তবে কাদের ইশারায় এবং কিসের লক্ষে এই পরিষদ গঠিত হল তা তদন্ত করে বের করার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ রইলো।
ইসলাম বিরোধী সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর এখনই সময়! চারদিকে গণআন্দোলনের কারণে হাইকোর্ট রাষ্ট্রধর্ম ইসলামকে বাতিল করতে পারেনি  এবং জঙ্গিবাদ সম্পর্কে সারা বাংলার আপামর জনগণ যেভাবে সবাই অবগত হয়েছে, ঠিক সেইভাবে ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা এই ইসলাম বিরোধী সকল অপশক্তির ঘৃণ্য চক্রান্ত কে প্রতিহত করবে এবং ইসলাম বিরোধী জাতীয় শিক্ষানীতি ২০১০ ও শিক্ষা আইন ২০১৬ বাতিল করেই ছাড়বে ইনশা-আল্লাহ।
পরিশেষে, দেশ ও জাতির কল্যাণের জন্য,ভূমিকম্প সহ নানা দুর্যোগ থেকে দেশকে হেফাজতের জন্য,সারা বিশ্বের মুসলিম উম্মাহর জন্য  বিশেষ দোয়া ও মুনাজাত করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
 

Notice: Uninitialized string offset: 0 in /home/joynalbd/public_html/bdnewstimes.com/wp-content/themes/bdnewstimes/bothsidebar.php on line 160

0 Comments

Leave a Reply

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

%d bloggers like this: