অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শেখ ফজলুল হক মনি : ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক

0
106

যুবনেতা শেখ ফজলুল হক মনি ছিলেন একজন নির্লোভ, নিরাহংকার, পরোপকারী, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অন্যতম একজন সৈনিক বলে মন্তব্য করেছেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদও সাবেক রাষ্ট্রদূত অধ্যাপক ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক।

তিনি বলেন, শেখ মনি দেশকে শোষণ, শাসন, নির্যাতন, দারিদ্রমুক্ত, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার কারিগর ছিলেন। তার স্বপ্নের এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সোনার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, বাঙালি জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসী সবাই ঐক্যের মাধ্যমে গড়া যাবে আসুন আবার ৬৯, ৭০ ও ৭১’র মত আবার ঐক্য করি এবং বাংলাদেশ সন্ত্রাস জঙ্গীবাদ সাম্প্রদায়িকতা দারিদ্রমুক্ত উন্নত বাংলাদেশ গড়ি।

বুধবার (১১ ডিসেম্বর) তোপখানার সাংবাদিক নির্মল সেন মিলনায়তনে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, মুক্তিযুদ্ধে মুজিব বাহিনীর সেক্টর প্রধান, বাংলাদেশ আওয়ামী যুব লীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনি’র ৮০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শেখ ফজলুল হক মনির চিন্তার দূরদর্শিতা ও চাওয়াকে আজকের যুবকদের কাজে লাগাতে হবে। তবেই তাকে স্মরণ করা সার্থক হবে। শেখ মনি আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ প্রতিষ্ঠা করেছেন। যুবকদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী করে বিশ্বমানের শিক্ষিত জাতি গড়ার জন্য। এই সভা থেকে আমাদের ঘোষণা হউক আমরা বাংলাদেশের যুব সমাজকে এমনভাবে গড়ি যে যুব সমাজ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা এবং প্রধানমন্ত্রীর আকাঙ্খিত বাংলাদেশ গড়বে।

জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ সভাপতি এম. এ. জলিলের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহন করেন বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের সভাপতি লায়ন গনি মিয়া বাবুল, বাংলাদেশের ডেপুটি এটর্নী জেনারেল এডভোকেট আবুল হাসেম, এডভোকেট নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, জয় বাংলা মঞ্চের সভাপতি মওলানা মুফতি মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ী, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা আ.স.ম মোস্তফা কামাল, আওয়ামী লীগ নেতা ও কবি মো. শাজাহান কবির, বাংলাদেশ জাসদ নেতা হুমায়ুন কবির, সংগঠনের সহ-সভাপতি জাহানারা বেগম, সাধারণ সম্পাদক সমীর রঞ্জন দাস, দপ্তর সম্পাদক কামাল হোসেন প্রমুখ।

লায়ন গনি মিয়া বাবুল বলেন, শেখ মনি জীবনকে বাজি রেখে বঙ্গবন্ধু নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন। যার ফলস্বরূপ বাংলাদেশ স্বাধীন। এই স্বাধীন বাংলাদেশে আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে এবং প্রধানমন্ত্রী যে শুদ্ধি অভিযান পরিচালনা করছেন তার প্রতি সমর্থন জানাচ্ছি। যার মাধ্যমে বাংলাদেশ হবে দুর্নীতি, ঘুষ, চাঁদাবাজি, মাদকমুক্ত উন্নত পরিবেশের আইনের শাসনের বাংলাদেশ।

গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, দেশ স্বাধীন করার লক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধের জন্য গোটা বাঙালী জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করার ক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দূরদর্শী নেতৃত্বে ধারাবাহিক আন্দোলন-সংগ্রামে অনন্য ভূমিকা রাখেন শেখ ফজলুল হক মনি। বিশ্ব মানচিত্রে স্বাধীন বাংলাদেশ যতকাল টিকে থাকবে; ততদিনই ইতিহাসের পাতায় অম্লান, অক্ষয় থাকবে এই নাম।

তিনি বলেন, শেখ ফজলুল হক মনি রাজনীতির পাশাপাশি সাহিত্য এবং সাংবাদিকতায়ও অবদান রাখেন। তার ‘অবাঞ্ছিতা’ উপন্যাস পাঠক সমাদৃত। দৈনিক বাংলার বাণী, ইংরেজি দৈনিক বাংলাদেশ টাইমস ও বিনোদন ম্যাগাজিন ‘সিনেমা’র সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

সভাপতির বক্তব্যে এম.এ জলিল বলেন, বাংলাদেশের ছাত্ররাজনীতি ও স্বাধীকার আন্দোলনের উজ্জল নক্ষত্র শেখ ফজলুল হক মনি একাধারে ছিলেন রাজনীতিবিদ ও সাংবাদিক। তিনি ছিলেন স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাগ্নে এবং বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা। স্বাধীনতা যুদ্ধে অন্যতম প্রধান গেরিলা বাহিনী ‘মুজিব বাহিনী’ তার নির্দেশে ও প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে গঠিত এবং পরিচালিত হয়। ’৭৫ এর ১৫ আগস্ট ঘাতকদের বুলেটে বঙ্গবন্ধু ও অন্যদের সঙ্গে তিনিও শহীদ হন।